• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১

 

পাতাল ও উড়াল পথ সমন্বয়ে হবে ঢাকার বৃত্তাকার রেলপথ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২১

সংবাদ :
  • ইবরাহীম মাহমুদ আকাশ

পাতাল ও উড়াল পথ সমন্বয় করে নির্মিত হবে ঢাকার বৃত্তাকার রেলপথ। ঢাকা শহরের ভিতরে প্রবেশ না করে নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুরে দ্রুত যাতায়াতের জন্য প্রায় ৮০ দশমিক ৮৯ কিলোমিটার বৃত্তাকার রেলপথ নির্র্মাণ করা হবে। গাজীপুরের টঙ্গী থেকে শুরু হয়ে ঢাকার চারপাশ দিয়ে আবার টঙ্গী স্টেশনে এসে শেষ হবে এই বৃত্তাকার রেলপথ। এরমধ্যে প্রায় ১০ কিলোমিটার রেলপথ হবে পাতাল। বাকি ৭০ দশমিক ৮৯ কিলোমিটার রেলপথ হবে উড়াল। এই রেলপথের সঙ্গে ৮ পয়েন্টে মেট্রোরেলের সঙ্গে যুক্ত হবে। বৃত্তাকার এই রেলপথে স্টেশন থাকবে ২৪টি। ইতোমধ্যে প্রকল্পের প্রাক-সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শেষ করেছে চীন ও বাংলাদেশের যৌথ পরামর্শক প্রতিষ্ঠান। বুধবার (২৭ জানুয়ারী) রেল ভবনে প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের চূড়ান্ত রিপোর্ট উপস্থাপন করে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানগুলো। এ সময় কেরানীগঞ্জের ঝিলমিল ও পূর্বাচলের পুরো অংশ যুক্ত করার প্রস্তাব দেয়া হয়। প্রকল্প বাস্তবায়নে ডিপিপি তৈরি করে খুব শীঘ্রই পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হবে বলে রেলওয়ে সূত্র জানায়।

বৃত্তাকার রেলপথ সম্পর্কে প্রকল্প পরিচালক মো. মনিরুল ইসলাম ফিরোজী সংবাদকে বলেন, যানজট নিরসনে ঢাকা শহরের চারপাশ দিয়ে এই সার্কুলার রেলপথটি নির্মাণ করা হবে। বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণে প্রাক-সম্ভাব্যতা যাচাই ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান খোঁজা হচ্ছে। বৃত্তাকার এই রেলপথ পরিকল্পনা অনেক আগের। আজ (বুধবার) প্রাক-সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের চূড়ান্ত রিপোর্ট উপস্থাপন করেছে।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, বৃত্তাকার রেলপথের সম্ভাব্য ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ৩২ হাজার কোটি টাকা। সময় ধরা হয়েছে ৩ বছর। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে জাইকা, বিশ্বব্যাংক, এডিবিসহ অন্য আরও কয়েকটি সংস্থা উন্নয়ন-সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে উন্নয়ন-সহযোগীদের কাছ থেকে সাড়া না পেলে নিজস্ব অর্থায়নেই প্রকল্পটির কাজ শুরু করার পরিকল্পনা করছে সরকার।

গাজীপুরের টঙ্গী থেকে শুরু হয়ে আবার টঙ্গী স্টেশনে এসে শেষ হবে এই বৃত্তাকার রেলপথ। এরমধ্যে টঙ্গী, বিশ্ব ইজতেমা, দৌর, উত্তরা, মিরপুর চিড়িয়াখানা, গাবতলী, মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধ, রায়েরবাজার, কামরাঙ্গীরচর-১, কামরাঙ্গীরচর-২, সদরঘাট, পোস্তগোলা, পাগলা, ফতুল্লা, চাষাঢ়া, চিত্তরঞ্জন, আদমজী, সিদ্ধিরগঞ্জ, ডেমরা, ত্রিমুহনী, বেরায়েত, পূর্বাচল, পূর্বাচল উত্তর, তেরমুখ হয়ে পনুরায় টঙ্গী গিয়ে শেষ হবে। বৃত্তাকার এই রেল নেটওয়ার্ক হবে উচ্চতর বিদ্যুৎ এবং ডাবল লাইন স্ট্যান্ডার্ড গেজসম্পন্ন।

বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণের এই প্রকল্পের প্রাক-সম্ভাব্যতা সমীক্ষা শুরু হয় ২০১৪ সালে। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ২৭ কোটি টাকার ‘সমীক্ষা প্রকল্প’ অনুমোদন দিয়েছিল পরিকল্পনা কমিশন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৃহৎ এ প্রকল্পটি বাস্তবায়নে মোট ৩২ হাজার কোটি টাকার প্রয়োজন হবে। তবে ভবিষ্যতে এ ব্যয় আরও বাড়তে পারে। এজন্য বিদেশি কোন বিনিয়োগকারী পেলে সরকার তা সানন্দে গ্রহণ করবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানায়।

প্রকল্প সূত্র জানায়, পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) ভিত্তিতে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে আগ্রহ প্রকাশ করেছে জাইকা। এই নিয়ে জাইকার সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়েছে। বর্তমানে প্রকল্পের ফিজিবিলিটি স্টাডি ও ডিটেইল ডিজাইনের কাজ শেষ পর্যায়ে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ঢাকা আশপাশের জেলার মানুষ সহজে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাতায়াত করতে পাবরে। কেউ যদি নারায়ণগঞ্জ থেকে উত্তরা যেতে চায় তাহলে রাজধানী ভিতরে প্রবেশ না করেই বৃত্তাকার এই রেলপথ ব্যবহার করে সহজেই যাতায়াত করতে পারবেন।

এছাড়া বৃত্তাকার এই রেলপথের সঙ্গে ৮ পয়েন্টে মেট্রোরেলের সঙ্গে যুক্ত হবে। এগুলো হলো- গাজীপুরের টঙ্গী স্টেশনে, আশুলিয়া বেড়িবাঁধে দৌর ব্রিজের কাছে, গাবতলী, শ্যামপুর, চাষাঢ়া, বিরায়েত, পূর্বাচল ও তেরমুখ স্টেশনে মেট্রোরেলের সঙ্গে যুক্ত হবে এই বৃত্তাকার রেলপথটি। বৃত্তাকার এই রেলপথের মধ্যে প্রায় ১০ কিলোমিটার অংশ মাটির নিচ দিয়ে যাবে। এরমধ্যে কেরানীগঞ্জের-২ স্টেশন থেকে পোস্তগোলা পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার পাতাল রেলপথ হবে। এছাড়া মিরপুর চিড়িয়াখানা-গাবতলী পর্যন্ত প্রায় ৪ কিলোমিটার রেলপথ মাটির নিচ দিয়ে নির্মাণ করা হবে বলে রেলওয়ে সূত্র জানায়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদের ৫ কোটি টাকার ক্ষতি

জেলা বার্তা পরিবেশক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থকদের চালানো তান্ডবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পরিষদের আনুমানিক পাঁচ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল আলম এমএসসি।

চট্টগ্রামে বৈশাখী পোশাকে ক্রেতার সাড়া নেই

চট্টগ্রাম ব্যুরো

বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতিতে বৈশাখের আবহ নেই চট্টগ্রামে। এ অবস্থায় ফ্যাশন হাউজ ও বিপণিবিতানগুলো মুখ থুবড়ে বসে আছে।

একদিনে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড, কমেছে আক্রান্ত

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

টানা দু’দিন শনাক্তের সংখ্যা কিছুটা কমলেও এই সময়ে দেড় শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে করোনায়।

sangbad ad

আধিপত্য বিস্তার নিয়ে হামলা সংঘর্ষ, নিহত ২ আহত ১৫ বাড়িঘর ভাঙচুর

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, বরিশাল

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ উলানিয়ায় এলাকার আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে হামলা ও সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন।

সালথায় সহিংসতায় ক্ষয়ক্ষতি ৩ কোটি টাকা

কেএম রুবেল, ফরিদপুর

ফরিদপুরের সালথায় বিভিন্ন সরকারি স্থাপনায় হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় অন্তত তিন কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

লকডাউনের আগে পোশাক শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের দাবি

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

লকডাউনের আগে পোশাক শ্রমিকদের রেশনের ব্যবস্থা ও সব পাওনা

খোলা থাকবে পোশাক কারখানা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

লকডাউনে জরুরি সেবা ছাড়া সবকিছু বন্ধ থাকলেও তৈরি পোশাক কারখানা খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

দেশব্যাপী রোববর (১১ এপ্রিল) করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন ২৩ হাজার ৬৫৭ জন এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন এক লাখ ৬৫ হাজার ৬৯১ জন।

সিলেটের কানাইঘাটে বােরাে ধানের বাম্পার ফলন

প্রতিনিধি, সিলেট

image

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলায় এ বছর রেকর্ড পরিমাণ বোরো ধানের আবাদ হয়েছে।