• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ২৭ মে ২০২০

 

বিইআরসির গণশুনানি শুরু গ্যাসের দাম বাড়াতে পেট্রোবাংলা ও জিটিসিএলের প্রস্তাব

নিউজ আপলোড : ঢাকা , সোমবার, ১১ মার্চ ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

আবাসিক, বাণিজ্যিক ও শিল্পসহ সব ধরণের গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করতে সঞ্চালন ও বিতরণ কোম্পানিগুলোর প্রস্তাবের উপর গণশুনানি ১১ মার্চ সোমবার শুরু হয়েছে, চলবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি) এর চেয়ারম্যান মনোয়ার ইসলাম এর নেতৃত্বে সদস্য আব্দুল আজিজ, মিজানুর রহমান, রহমান মুরশেদ ও মাহমুদউল হক ভুইয়া রাজধানীর কাওরান বাজারের টিসিবি ভবনে এ গণশুনানি গ্রহণ করেন। সকালে বাংলাদেশ তৈল, গ্যাস ও খনিজ সম্পদ করপোরেশন (পেট্রোবাংলা) গ্যাসের দাম বাড়ানোর যৌক্তিকতা তুলে ধরে একটি প্রস্তাবনা উপস্থান করে। এরপর গ্যাস সঞ্চালন চার্জ বৃদ্ধির জন্য গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের (জিটিসিএল) প্রস্তাবের উপর গণশুনানি শুরু হয়। আজ মঙ্গলবার সকালে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির প্রস্তাবের ওপর এবং দুপুরে সুন্দরবন গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের প্রস্তাবের ওপর শুনানি হবে।

সোমবার সকালে গণশুনানিতে পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান রুহুল আমিন করপোরেশনের প্রস্তবনায় বলেন, দেশে নিরবচ্ছিন্ন জ্বালানি সরবরাহের জন্য এলএনজি আমদানি অব্যাহত রাখতে হবে। সঙ্গত কারণে গ্যাসের দাম বাড়ানোর কোনও বিকল্প নেই। পেট্রোবাংলার লিখিত আবেদনে দেখা গেছে, বর্তমানে দেশের কোম্পানি বিজিএফসিএল’র কাছ থেকে ৭৭২ এমএমসিএফডি গ্যাস ৭০ পয়সা হারে (ঘনমিটার), বাপেক্সের কাছ থেকে ৩ টাকা ৪ পয়সা হারে ১০৮ এমএমসিএফডি, এসজিএফসিএল -এর কাছ থেকে ২০ পয়সা হারে ১২৪ এমএমসিএফডি, আইওসির কাছ থেকে ২ দশমিক ৫৫ টাকা হারে ১ হাজার ৭১২ এমএমসিএফডি গ্যাস কেনা হচ্ছে, যার ইউনিট প্রতি দাম পড়ছে গড়ে প্রায় সাড়ে ৬ টাকার মতো। আর আমদানি করা এলএনজির দাম পড়বে ৩৯ দশমিক ৮২ টাকা। বর্তমানে গড়ে প্রতি ঘনমিটার গ্যাস ৭ দশমিক ১৭ টাকা দরে বিক্রি করছে। এর সঙ্গে এলএনজি চার্জ ৯ দশমিক ৫৫ টাকা হারে নির্ধারণ করার প্রস্তাব করেছে পেট্রোবাংলা।

পেট্রোবাংলা তার আবেদনে বলছে, ডলারের দাম বেড়ে যাওয়া, বাণিজ্যিক ব্যাংকে পর্যাপ্ত ডলার সঞ্চিত না থাকায় বেসরকারি ব্যাংককে সম্পৃক্ত করার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সংস্থা থেকে বৈদেশিক মুদ্রা সংগ্রহের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এভাবে অর্থায়ন করলে আরও ৫ ভাগ খরচ বাড়বে। করপোরেশনটি জানায় ঘাটতি মেটাতে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে তিন হাজার ৬৬০ কোটি টাকা দরকার হলেও অর্থ বিভাগ কোন অনুদান দেয়নি।

পেট্রোবাংলার বলছে, বর্তমানে প্রতিদিন ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুট (এমএমসিএফ) এলএনজি জাতীয় গ্রিডে যোগ হচ্ছে। আগামী মাস এপ্রিল থেকে আরো ৫শ এমএমসিএফ আসবে। মোট এক হাজার মিলিয়ন ঘনফুট লিকুইড ন্যাচারাল গ্যাস (এলএনজি) আমদানি করলে বছরে ২৪ হাজার ৫৪০ কোটি টাকা ঘাটতিতে পড়বে জ্বালানি খাত।

জিটিসিএল’র পক্ষে কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আল মামুন সঞ্চালন চার্জ বৃদ্ধির ওপর প্রস্তবনা উপস্থাপন করেন। গত বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর সঞ্চালন চার্জ প্রতি ঘনমিটারে শূন্য দশমিক ২৬৫৪ টাকা থেকে বাড়িয়ে শূন্য দশমিক ৪২৩৫ টাকা করে কমিশন। চার মাসের মাথায় জিটিসিএল আবারও সঞ্চালন চার্জ বাড়ানোর প্রস্তাব দিল। একই অর্থবছরের মধ্যে গ্যাসের দাম বাড়ানোর এটি দ্বিতীয় উদ্যোগ। এর আগে সব প্রস্তুতি নিয়েও নির্বাচনের আগে দাম বাড়ানোর প্রক্রিয়া থেকে সরে আসে কমিশন। জিটিসিএল এর প্রস্তাবে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রতি ইউনিট গ্যাস সঞ্চালনে শুন্য দশমিক ১৪৩০ টাকা এবং ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রতি ইউনিট গ্যাস সঞ্চালনে শুন্য দশমিক ১৪৪১ টাকা ঘটতি থাকবে জানিয়ে তা সমন্বয় করার কথা বলা হয়েছে। তবে প্রস্তাবনা যাচাই করে বিইআরসির কারিগরি মূল্যায়ন কমিটির দেখেছে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রতি ইউনিট গ্যাস সঞ্চালনে জিটিসিএল এর শুন্য দশমিক ০৪০১ টাকা এবং ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রতি ইউনিট গ্যাস সঞ্চালনে শুন্য দশমিক ০৭৩৭ টাকা ঘটতি হতে পারে। তবে ২০১৮-১৯ অর্থবছর সমাপ্তির পর প্রকৃত তথ্যের ভিত্তিতে ট্রান্সমিশন চার্জ সমন্বয় করার কথা বলেছে কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি।

শুনানির শুরুতে কমিশনের চেয়ারম্যান মনোয়ার ইসলাম বলেন, আগে গ্যাসের দাম বাড়ানোর সময় সামিট এলএনজির ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুট এলএনজি জাতীয় গ্রিডে যোগ হয়নি। আগামী এপ্রিল থেকে আরও ৫০০ মিলিয়ন ঘনফুট এলএনজি জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে। ফলে গ্যাসের দাম সমন্বয় করা দরকার।

জানা গেছে, বিতরণ কোম্পানিগুলোর প্রস্তাবে গ্রাহক পযায়ে এক বার্নারের গ্যাসের চুলা ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক হাজার টাকা, দুই বার্নারের চুলা ৮০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১ হাজার ২০০ টাকা এবং মিটারযুক্ত চুলার ক্ষেত্রে প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দাম ৯ টাকা ১০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১৩ টাকা ৬৫ পয়সা করার প্রস্তাব দিয়েছে। এছাড়া, গ্যাসের দাম গড়ে ৬৬ শতাংশ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে কোম্পানিগুলে। এরমধ্যে বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর গ্যাসের দাম প্রতি ঘনমিটারে ৩ টাকা ১৬ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৭ টাকা ৬৬ পয়সা, সার কারখানার ক্ষেত্রে ২ টাকা ৭১ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৭ টাকা, ক্যাপটিভ বিদ্যুৎকেন্দ্রের ক্ষেত্রে ৯ টাকা ৬২ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১৫ টাকা ৭০ পয়সা, শিল্প কারখানার ক্ষেত্রে ৭ টাকা ৭৬ পয়সা থেকে ১৫ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে তারা।বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহৃত গ্যাসের দাম ১৭ টাকা ৪ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ২০ টাকা এবং সিএনজির গ্যাসের দাম ৩২ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৪০ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে কোম্পানিগুলো।

সোমবার কাওরান বাজারের টিসিবি ভবনে গণশুনানি চলাকালে টিসিবি অডিটোরিয়ামের বাইরে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবের বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন করেছে নাগরিক সমাজ। সংগঠনের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন আহমেদ এর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সদস্য সচিব দেলোয়ার হোসেন, যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির আকবর খান, গণতান্ত্রিক পার্টির শামসুল আলম প্রমুখ।

কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. এম শামসুল আলম বলেন, আইন অনুযায়ী একবার মূল্যবৃদ্ধির ১২ মাসের মধ্যে নতুন করে মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব দিতে পারে না সঞ্চালন ও বিতরণ কোম্পানিগুলো। আর যদি দেয়ও, তাহলে বিইআরসি তা বাতিল করে দেবে, শুনানি করার সুযোগ নেই। বিইআরসি কেন আইন মেনে গণশুনানি করতে পারছে না। তিনি বলেন, যখন দৈনিক ১ হাজার মিলিয়ন ঘনফুট (এমএমসিএফ) এলএনজি আসবে তখন ঘাটতি দাঁড়াবে ৩১ হাজার কোটি টাকা এমন হিসেব দিয়ে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। অথচ যখন ৫০০ এমএমসিএফডি আসে তখন বলা হয়েছিল ঘাটতি সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা। ভোক্তার ঘরে না দিয়েই কোনো যুক্তিতে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির শুনানি হচ্ছে।

গ্যাসের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে আজ মঙ্গলবার সকালে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির প্রস্তাবের ওপর, দুপুর আড়াইটা থেকে সুন্দরবন গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের প্রস্তাবের ওপর আগামীকাল বুধবার সকালে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের আর দুপুরে জালালাবাদ গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম লিমিটেডের প্রস্তাবের ওপর এবং বৃহস্পতিবার সকালে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড এবং দুপুরে পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানি লিমিটেডের প্রস্তাবের ওপর শুনানি করবে কমিশন।

জয়পুরহাটে টর্নেডোয় ৪০ গ্রাম লণ্ডভণ্ড, নিহত ৪

প্রতিনিধি, জয়পুরহাট

image

জয়পুরহাটে টর্নেডোয় প্রায় ৪০ গ্রাম লণ্ডভণ্ড হয়েছে। দেয়াল চাপা পড়ে একই পরিবারের তিনজনসহ চারজনের মৃত্যু হয়েছে। মুরগীর সেড ভেঙ্গে প্রায় ৪০ হাজার মুরগী মারা গেছে। প্রায় দুই হাজার বাড়ি-ঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের টিনের চালা উড়ে গেছে। শত শত গাছ ও বিদ্যুতের শতাধিক খুঁটি ওপড়ে গেছে। গত রাত সাড়ে দশটার পর থেকে জেলায় বিদ্যুত সরবরাহ বন্ধ রয়েছে।

রংপুরে মদপানে একসঙ্গে ৬ জনের মৃত্যু

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় বিষাক্ত মদপানে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সঙ্গে মদপানে অসুস্থ হয়ে হাসপাতাল ও বাড়িতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন অন্তত সাতজন। সোমবার ২৫ মে মদপান করে ঈদ উদযাপন করতে গিয়ে পীরগঞ্জ উপজেলার শানেরহাট ইউনিয়নের শানেরহাট বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

বিকন ফার্মার এমডি সাংসদ এবাদুল করিম বুলবুল করোনায় আক্রান্ত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বিকন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাংসদ মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তার বড় ভাই ওরিয়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওবায়দুল করিম মঙ্গলবার রাতে এ খবর জানান।

sangbad ad

সিলেটে বিভাগে আরও ৪১ জনের করোনা শনাক্ত

প্রতিনিধি, সিলেট

image

সিলেট বিভাগে আরও ৪১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সোমবার ঢাকা, সিলেট ও ময়মনসিংহের তিনটি ল্যাবে পৃথক পরীক্ষায় ৪১ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ১৯, সুনামগঞ্জে ৯, হবিগঞ্জে ৫ ও মৌলভীবাজারে ৮ জন রয়েছেন। এ নিয়ে বিভাগে করোনা সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা দাড়িয়েছে ৬৯৭ জনে। বিভাগের চার জেলার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আনিসুর রহমান।

চলে গেলেন ডেপুটি স্পিকারের স্ত্রী আনোয়ারা রাব্বী

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার সহধর্মিনী আনোয়ারা রাব্বী শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন (ইন্নালিল্লাহি...রাজিউন)। আজ মঙ্গলবার ২৬ মে বেলা পৌনে ১১টায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৬৭ বছর।

মির্জাপুরে এক পুলিশ সদস্যসহ ৬ জনের করোনা শনাক্ত

প্রতিনিধি, মির্জাপর (টাঙ্গাইল )

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ঈদের দিনেএক পুলিশ সদস্যসহ ৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সোমবার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাকসুদা খানম। গত ২০ মে

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী করোনা আক্রান্ত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত অ্যান্টিজেন কিট দিয়ে

এ এক অন্যরকম ঈদ

ওয়ালিয়ার রহমান

image

ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে খুশি। আজ নেই আনন্দ, নেই হাসিমুখ, নেই আতরের গন্ধমাখা হাসিমুখের কোলাকুলি। এ যেন এক অন্যরকম ঈদ। করোনাভাইরাসের কারণে আতঙ্ক নিয়ে আজ আমরা এমন ঈদ উদযাপন করছি । যা আগে কেউ দেখেনি।

সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা : সংবাদ সম্পাদক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দৈনিক সংবাদের সকল পাঠক, লেখক, বিজ্ঞাপনদাতা, শুভাকাঙ্খী ও শুভানুধ্যায়ীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা । ঈদ সবার জীবনের বয়ে আনুক অনাবিল সুখ আর আনন্দ-সম্পাদক

sangbad ad