• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০

 

ডিজটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫ ও ৩১ ধারা কেন অসাংবিধানিক নয় রুল জারি

নিউজ আপলোড : ঢাকা , সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

ডিজটাল নিরাপত্তা আইনের দুটি (২৫ ও ৩১) ধারা কেন অসাংবিধানিক ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। চার সপ্তাহের মধ্যে আইনসচিব ও তথ্যসচিবকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। ২৪ ফেব্রুয়ারি সোমবার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদারের সমন্বয়ে গঠিত একটি ডিভিশন বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী ইমরান এ সিদ্দিক ও শিশির মনির। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশের) মহাসচিব মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী মো. আসাদ উদ্দিন, মো. আসাদুজ্জামান, মো. জোবাইদুর রহমান, মো. মহিউদ্দিন মোল্লা ও মো. মুজাহিদুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ইসমাইল, ড. মো. কামরুজ্জামান ও ড. মো. রফিকুল ইসলাম রিট আবেদনটি করেছিলেন। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫, ২৮, ২৯ ও ৩১ ধারার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত ১৯ জানুয়ারি হাইকোর্টে এ রিট আবেদনটি করা হয়।

রিটে ২৮, ২৯ ধারাও চ্যালেঞ্জ করা হলেও এ দুটি ধারার চ্যালেঞ্জ আদালত গণ্য করেননি। এ বিষয়ে আইনজীবী শিশির মনির বলেন, আমরা আদালতে বলেছিলাম, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৮, ২৯ ধারায় যে অপরাধের কথা উল্লেখ আছে, দণ্ডবিধিতে তার যে সাজা দেওয়া আছে, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে এসব অপরাধের সাজা বেশি দেওয়া হয়েছে। তখন আদালত বললেন সংসদ চাইলে বেশি সাজা দিতে পারেন। কারণ ডিজিটাল মাধ্যমে যখন একটি খবর বা তথ্য প্রকাশ হয়, তখন তা সারা বিশ্বের কাছে উন্মুক্ত হয়ে যায়। এই যুক্তিতে আদালত এ দুই ধারায় রুল দেয়নি।

আইনটির ২৫ ধারায় বলা হয়েছে- ‘(১) যদি কোনো ব্যক্তি ওয়েবসাইট বা অন্য কোনো ডিজিটাল মাধ্যমে- (ক) ইচ্ছাকৃতভাবে বা জ্ঞাতসারে, এমন কোনো তথ্য-উপাত্ত প্রেরণ করেন, যাহা আক্রমণাত্মক বা ভীতি প্রদর্শক অথবা মিথ্যা বলিয়া জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও, কোনো ব্যক্তিকে বিরক্ত, অপমান, অপদস্থ বা হেয় প্রতিপন্ন করিবার অভিপ্রায়ে কোনো তথ্য-উপাত্ত প্রেরণ, প্রকাশ বা প্রচার করেন, বা (খ) রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি বা সুনাম ক্ষুণ্ন করিবার, বা বিভ্রান্তি ছড়াইবার, বা তদুদ্দেশ্যে, অপপ্রচার বা মিথ্যা বলিয়া জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও, কোনো তথ্য সম্পূর্ণ বা আংশিক বিকৃত আকারে প্রকাশ, বা প্রচার করেন বা করিতে সহায়তা করেন, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। (২) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনধিক ৩ (তিন) বৎসর কারাদণ্ডে, বা অনধিক ৩ (তিন) লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডে, বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন।

(৩) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত অপরাধ দ্বিতীয় বার বা পুনঃপুন সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর কারাদন্ডে, বা অনধিক ১০ (দশ) লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে, বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন।

৩১ ধারায় বলা হয়েছে- (১) যদি কোনো ব্যক্তি ইচ্ছাকৃতভাবে ওয়েবসাইট বা ডিজিটাল বিন্যাসে এমন কিছু প্রকাশ বা সম্প্রচার করেন বা করান, যাহা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন শ্রেণি বা সম্প্রদায়ের মধ্যে শত্রুতা, ঘৃণা বা বিদ্বেষ সৃষ্টি করে বা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করে বা অস্থিরতা বা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে অথবা আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটায় বা ঘটিবার উপক্রম হয়, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। (২) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনধিক ৭ (সাত) বৎসর কারাদণ্ডে, বা অনধিক ৫ (পাঁচ) লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডে, বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন। (৩) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত অপরাধ দ্বিতীয় বার বা পুনঃপুন সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনধিক ১০ (দশ) বৎসর কারাদন্ডে, বা অনধিক ১০ (দশ) লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে, বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হইবেন।

২৮ ধরায় বলা হয়েছে- (১) যদি কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী ইচ্ছাকৃতভাবে বা জ্ঞাতসারে ধর্মীয় মূল্যবোধ বা অনুভূতিতে আঘাত করিবার বা উস্কানি প্রদানের অভিপ্রায়ে ওয়েবসাইট বা অন্য কোনো ইলেকট্রনিক বিন্যাসে এমন কিছু প্রকাশ বা প্রচার করেন বা করান, যাহা ধর্মীয় অনুভূতি বা ধর্মীয় মূল্যবোধের উপর আঘাত করে, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। (২) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর কারাদণ্ডে, বা অনধিক ১০ (দশ) লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে, বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন। (৩) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত অপরাধ দ্বিতীয় বার বা পুনঃপুন সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনধিক ১০ (দশ) বৎসর কারাদণ্ডে, বা অনধিক ২০ (বিশ) লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডে, বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন।

২৯ ধারায় বলা হয়েছে- (১) যদি কোনো ব্যক্তি ওয়েবসাইট বা অন্য কোনো ইলেকট্রনিক বিন্যাসে Penal Code (Act XLV of 1860) Gi section 499 এ বর্ণিত মানহানিকর তথ্য প্রকাশ বা প্রচার করেন, তজ্জন্য তিনি অনধিক ৩ (তিন) বৎসর কারাদন্ডে, বা অনধিক ৫ (পাঁচ) লক্ষ টাকা অর্থদণ্ডে, বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন। (২) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এ উল্লিখিত অপরাধ দ্বিতীয় বার বা পুনঃপুন সংঘটন করেন, তাহা হইলে উক্ত ব্যক্তি অনধিক ৫ (পাঁচ) বৎসর কারাদণ্ডে, বা অনধিক ১০ (দশ) লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে, বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হইবেন।

বিশ্বে আক্রান্ত ১০ লাখের বেশি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

বিশ্বজুড়ে মহামারী রূপ নেয়া নভেল করোনাভাইরাসে নিশ্চিত আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দশ লাখ ছাড়িয়েছে। আর মৃতের সংখ্যা ৫৫ হাজার

নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ঝুঁকি বাড়িয়ে হাটবাজারে জনসমাগম

প্রতিনিধি, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)

image

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও মানুষ ঘরের বাইরে এসে হাটবাজার গুলিতে ভীড় জমিয়ে কেনাকাটা করছে প্রতিনিয়ত। করোনা

নকল হ্যান্ড স্যানিটাইজার উৎপাদনের অপরাধে গ্রেফতার ১

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে অননুমোদনহীন কারখানায় নকল স্যানিটাইজার উৎপাদন ও বাজারজাত করার অপরাধে এক কারখানা মালিককে

sangbad ad

শরণখোলায় টিসিবি পণ্য কিনতে হুমড়ি!

প্রতিনিধি, শরণখোলা

image

বাগেরহাটের শরণখোলায় টিসিবির মাধ্যমে খোলাবাজারে ডাল, চিনি ও তেল বিক্রি শুরু হয়েছে।

সিরাজগঞ্জে তাঁতশিল্প বন্ধে বেকার তিন লাখ শ্রমিক

জেলা বার্তা পরিবেশক, সিরাজগঞ্জ

image

শ্রমিকরা বেকার হয়ে অনেকের অর্ধাহার অনাহারে দিন কাটাচ্ছে।

রংপুরে করোনা পরীক্ষার পিসিআর মেশিন চালু

জেলা বার্তা পরিবেশক,রংপুর

image

এখন থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে করোনা সনাক্ত করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যাক্ষ অধ্যাপক ডা, নুরন্নবী লাইজু।

দক্ষিণ এশিয়ার চারদেশে করোনা নিয়ন্ত্রণে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

চীনের সীমান্তঘেঁষা ‘ভিয়েতনাম’। দেশটিতে বুধবার (১ এপ্রিল) পর্যন্ত ২২৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত (কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়

৫ শতাধিক শিশু ও ছিন্নমূল মানুষকে খাওয়াল রেলওয়ে পুলিশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে দুই দফায় লম্বা ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার

জামাই শ্বশুর বাড়িতে কোয়ারেন্টিন না মানায় সংঘর্ষ আহত ১৩

প্রতিনিধি, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ)

image

ঢাকা থেকে শশুর বাড়িতে এসে হোম কোয়ারেন্টে না থাকাকে কেন্দ্র করে মহল্লাবাসীর

sangbad ad