• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , শনিবার, ৩০ মে ২০২০

 

জুলহাস তন্ময় হত্যা ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়া হচ্ছে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রোববার, ১২ মে ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস কর্মকর্তা জুলহাস মান্নান ও মাহবুব রাব্বী তন্ময় হত্যা মামলায় ৮ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র প্রস্তুত করা হয়েছে। এরপর তা আদালতে দাখিলের অনুমোদনের জন্য ১২ মে রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে মামলার তদন্তকারী সংস্থা ডিএমপির কাউন্টার টেরোজিম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি)। মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের পর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে। অভিযুক্তদের মধ্যে আনসার আল ইসলামের মিডিয়া শাখার প্রধান ও ইন্টেলিজেন্স সদস্য মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন (২৫), সামরিক শাখার সদস্য ও সমন্বয়ক মো. আরাফাত রহমান (২৪), ইন্টেলিজেন্স শাখার প্রধান শেখ আবদুল্লাহ (২৭) ও সামরিক শাখার সদস্য আসাদুল্লাহ (২৫) গ্রেফতার রয়েছে। সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হক ওরফে মেজর জিয়া (চাকরিচ্যুত মেজর) (৪২), আকরাম হোসেন (৩০) সাব্বিরুল হক চৌধুরী (২৬) ও মো. জুনাইদ আহমদ ওরফে মাওলানা জুনেদ আহম্মদ ওরফে জুনায়েদকে (২৬) অভিযোগপত্রে পলাতক দেখানো হয়েছে। আর নাম পরিচয় জানা না থাকায় ৫ জনকে চার্জশিটে আসামি হিসেবে সম্পৃক্ত করা সম্ভব হয়নি।

সূত্র জানায়, অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, মামলাটি তদন্তকালে হত্যাকা-ের সঙ্গে সরাসরি জড়িত ১৩ জনের সম্পৃক্ততা পায় সিটিটিসি। ঘটনায় সম্পৃক্ত অন্য ৫ আসামির শুধু সাংগঠনিক নাম জানা যায়। পূর্ণাঙ্গ নাম-ঠিকানা সংগ্রহ করা সম্ভব না হওয়ায় ৮ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র প্রস্তুত করা হয়েছে। পলাতক আসামিদের অদূর ভবিষ্যতে গ্রেফতার করা সম্ভব হলে সম্পূরক অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে। অভিযুক্তদের মধ্যে গ্রেফতারকৃত ৪ জন আদালতে ঘটনার সংশ্লিষ্টতা স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

মামলার তদন্ত শেষে আসামিদের জবানবন্দি ও অন্যান্য সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে জানা যায়, ঘটনার সঙ্গে জড়িত আসামিরা নিষিদ্ধ ঘোষিত সন্ত্রাসী সংগঠন আনসার আল ইসলামী বিভিন্ন পর্যায়ের সক্রিয় সদস্য। সংগঠনের নেতা সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হক ওরফে মেজর জিয়ার (চাকরিচ্যুত মেজর) নির্দেশে সংগঠনের সামরিক শাখার সদস্যরা এ হত্যাকা- ঘটায়।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ২৫ এপ্রিল রাজধানীর ৩৫ নং উত্তর ধানমন্ডি ঠিকানায় ইউ এস এইড, ঢাকায় কর্মরত জুলহাস মান্নান ও তার বন্ধু মাহবুব রাব্বী তন্ময়কে সন্ত্রাসীরা নৃসংসভাবে হত্যা করে।

মির্জাপুরে ট্রাক-সিএনজির সংঘর্ষে নিহত এক, আহত তিন

প্রতিনিধি, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)

image

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ট্রাক ও সিএনজি চালিত অটোরিকশার মুখোমুখী সংঘর্ষে একজন নিহত এবং তিনজন আহত হয়েছে।

ঘরে থেকেই করোনা যুদ্ধে জয়ী হলেন স্বাস্থ্যকর্মী মঞ্জুরুল ইসলাম

প্রতিনিধি, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল )

image

করোনকে জয় করার প্রধান অস্ত্র হচ্ছে ঘরে অবস্থান। আর সেই প্রধান অন্ত্র প্রয়োগ করেই করোনাকে হার মানিয়ে এখন সুস্থ্য জীবনে ফিরেছেন

রেড ক্রিসেন্টকে ২৮ হাজার মেডিকেল গ্রেড পিপিই দিলো নোভারটিস

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

করোনা সংকট মোকাবিলায় চিকিৎসা সহায়তা হিসেবে বাংলাদেশে ২৮ হাজার ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী বা পিপিই উপহার দিয়েছে শীর্ষস্থানীয়

sangbad ad

চাটখিলে আ.লীগের দুই গ্রপের সংঘর্ষে আহত ১০, দোকান ভাংচুর লুটপাট

প্রতিনিধি চাটখিল (নোয়াখালী):

চাটখিল উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের মলংচর ও হাসর গ্রামের স্থানীয় আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী দুই গ্রুপের সংঘর্ষ হয়। বৃহস্পতিবার রাতে এ সংঘর্ষে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়।

৯৯৯ ফোনে সুন্দরবনে হারিয়ে যাওয়া ছয় কিশোর উদ্ধার

প্রতিনিধি, শরণখোলা (বাগেরহাট)

৯৯৯ এ ফোন করে উদ্ধার হলো সুন্দরবনে হারিয়ে যাওয়া ছয় কিশোর। প্রায়

মোরেলগঞ্জে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর ৮ হাজার কেজি চালসহ ট্রলার ডুবি

প্রতিনিধি, মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট)

মোরেলগঞ্জে ৮ হাজার ১০০ কেজি চালসহ একটি ট্রলার ডুবে গেছে। গত বৃহস্পতিবার

বগুড়ায় ১৫ টন চালসহ খাদ্য গুদাম কর্মকর্তা আটক

প্রতিনিধি, বগুড়া

গাবতলীতে খাদ্য গুদাম থেকে চাল পাচারের সময় গুদাম কর্মকর্তা গাজি মোঃ শফিকুলকে আটক করেছে পুলিশ।

করোনা ঝুঁকি নিয়েই ঢাকায় ফিরছে মানুষ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঈদের ছুটি শেষ । সরকারের সাধারণ ছুটিও শেষ হচ্ছে কাল । এখন চাকরি বাঁচাতে জীবনের ঝুঁকি নিয়েই ঢাকা ফিরছে হাজারও মানুষ। প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ উদযাপন শেষে জীবিকার তাগিদে আজ শুক্রবার সকালে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ফেরি ঘাটে এমন চিত্র দেখা গেছে। হাজার হাজার মানুষ ছুটছে কর্মস্থল ঢাকা ও তার আশেপাশের জেলাগুলোতে । মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। ফলে করোনা ঝুঁকি নিয়েই ঢাকা ফিরছে তারা।

ঈদ শেষে ঢাকামুখী মানুষের ঢল

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ঈদ শেষে কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ। মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি । সরকার সাধারণ ছুটি আর বাড়াবেনা বলে ঘোষণা দেওয়ায় লোকজন এখন কর্মস্থলমুখী হচ্ছে। গণপরিবহন না থাকায় অনেক কষ্ট করে তারা জীবন-জীবীকার তাগিতে ঢাকামুখী হচ্ছেন । লঞ্চ, সিবোট এখনও চলাচল না করায় ফেরিতে গাদাগাদি করে যাত্রীরা পদ্মা পারি দিচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি না মানায় এখান থেকে করোনা সংক্রমিত হবার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

sangbad ad