• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০

 

গ্রেফতার হত্যাকারীর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি নিহত সায়মার বাবার

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রোববার, ০৭ জুলাই ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

রাজধানীর ওয়ারীতে ৭ বছরের শিশু সামিয়া আফরিন সায়মাকে ধর্ষণ করে হত্যার আগে ছাদ দেখানোর কথা বলে ডেকে নেয় ধর্ষক হারুন অর রশিদ। এর পর ভবনের ৯ তলার ফাকা ফ্লাটে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। ধর্ষনের পর শিশুটির উপর বর্বব নির্যাতন চালায় পাষন্ড হারুন। শিশুটিকে নৃশংসভাবে হত্যার পর গলায় রশি পেচিয়ে টেনে হিচড়ে ফ্লাটের রান্নাঘরে নিয়ে সিঙ্কের নিচে রেখে পালিয়ে যায়। ৭ জুলাই রোববার কুমিল্লা থেকে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক হারুনকে গ্রেফতারের পর এমন তথ্য পেয়েছে ঢাকা মহানগর অপরাধ তথ্য ও গোয়েন্দা বিভাগ(ডিবি)। রোববার ধর্ষক হারুণকে গণমাধ্যমের মুখোমুখি করা হয়। এ সময় ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরেন ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার আব্দুল বাতেন।

ধর্ষক হারুন ওই ভবনের ভাড়াটিয়া পারভেজের খালাতো ভাই। পারভেজ যে ভবনে থাকতো সেই ভবনের ৬ তলায় থাকতো সায়মার পরিবার। গত প্রায় ২ মাস আগে হারুন পারভেজের বাসায় আসে। সে পারভেজের বাসায় থাকতো এবং তার রংয়ের দোকানে কাজ করতো। নিহত সায়মার বাবা আব্দুস সালাম জানিয়েছেন, ‘মাগরিবের আজানের সময় আমি নামাজ পড়তে মসজিদে যাই। মসজিদ থেকে ফেরার সময় সন্ধ্যার নাশতা কিনে বাসায় আসি। বাসায় এসে দেখি সায়মা নেই। আমি, আমার স্ত্রীসহ সায়মাকে খুঁজতে শুরু করি। ছয়তলা ও আটতলায় খুঁজে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে আবার আটতলায় খুঁজতে গিয়ে রান্নাঘরে তার লাশ পাওয়া যায়।

সংবাদ সম্মেলনে ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার আব্দুল বাতেন বলেন, ৫ জুলাই শুক্রবার স্কুল ছাত্রী সায়মাকে নিজ ফ্ল্যাটে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। ভিকটিমের বয়স ছিল ৬ বছর এবং সে সিলভার ডেল স্কুলে নার্সারিতে পড়াশোনা করত। এ বিষয়ে ভিকটিমের পিতা মোঃ আঃ সালাম ওয়ারী থানায় অভিযোগ করলে একটি মামলা রুজু হয়। ঘটনার পরপরই ওয়ারী থানা পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান পরিচালনা করে। থানা পুলিশের পাশাপাশি গোয়েন্দা বিভাগও ছায়া তদন্ত শুরু করে। তদন্তের এক পর্যায়ে গোয়েন্দা পূর্ব বিভাগের ওয়ারী জোনাল টিম আসামীকে কুমিল্লা থেকে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।প্রাথমিকভাবে অভিযুক্ত ভিকটিমকে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে হত্যার বিষয়ে পুলিশের নিকট স্বীকার করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ‘শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে সাড়ে ৬টার মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। ওই দিন সায়মা তার মাকে বলে যায় ‘ভবনের আট তলায় ফ্ল্যাট মালিক পারভেজের ছোট বাচ্চার সঙ্গে সে খেলবে। ওই ফ্ল্যাটে গেলে পারভেজের স্ত্রী জানান, তার মেয়ে ঘুমাচ্ছে। এরপর শিশুটি নিজ ফ্লাটে ফিরে আসছিলো একা। ‘ভবনের লিফটে করে নামার সময় সায়মার সঙ্গে পারভেজের খালাতো ভাই হারুনের দেখা হয়। হারুন সায়মাকে ছাদ দেখানোর কথা বলে লিফট থেকে ছাদে নিয়ে যায়। এরপর সে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করলে সায়মা চিৎকার দেয়। এ সময় সে সায়মার মুখ চেপে ধরে এবং ধর্ষণ করে। পরে সায়মাকে নিস্তেজ দেখে তার গলায় দড়ি পেঁচিয়ে টেনে ফ্ল্যাটের রান্নাঘরে নিয়ে যায়। এরপর সায়মার লাশ সিঙ্কের নিচে রেখে হারুন পালিয়ে তার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লার তিতাস থানার ডাবরডাঙ্গায় চলে যায়।

শিশু ধর্ষণের ঘটনাকে মানবতাবিরোধী অপরাধ উল্লেখ করে অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) আব্দুল বাতেন বলেন, ‘এ ধরনের অপরাধীরা সাধারণত ধর্ষণের পর যখন মনে করে বিষয়টি জানাজানি হবে, বা নিজে রেহাই পাবে না, ঠিক তখনই ভুক্তভোগীকে হত্যা করে। মূলত অপরাধ ঢাকতে গিয়ে সায়মাকে হত্যা করেছে হারুন। ‘সায়মাদের পরিবারের সঙ্গে পারভেজের পরিবারের ভালো সখ্য ছিল। তবে এই ঘটনায় অন্য কোনও কারণ বা কেউ জড়িত ছিল না। হারুন এটা একাই ঘটিয়েছে।’

রোববার সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন শিশু সায়মার বাবা আব্দুস সালাম। তিবি বলেন মূল আসামি হারুন অর রশিদের দ্রুত সময়ে ফাঁসি কার্যকর করার দাবী জানাচ্ছি। আবদুস সালাম বলেন, ‘অল্প সময়ের মধ্যে মূল আসামিকে চিহ্নিত করতে পেরেছে পুলিশ। তাকে ধরতে পেরেছে। আমি চাই দ্রুত সময়ের মধ্যে, তিন মাস থেকে ছয় মাসের মধ্যে তাকে প্রকৃত শাস্তি দেওয়া হোক। সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হোক। সে যেহেতু আমার মেয়েকে দুই রকম নির্যাতন করে হত্যা করেছে, তাকে ছয় মাসের মধ্যে ফাঁসি দেওয়া হোক। আমি আমার মেয়েকে রক্ষা করতে পারিনি। আমার স্ত্রী আমাকে জানালো, মেয়ে তাকে বলে ‘১০ মিনিটের জন্য আমি আটতলার বাচ্চাটার সঙ্গে খেলে এসে আম্মু আমি তোমাকে পড়াগুলো দেবো’। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা থেকে সাড়ে সাতটার মধ্যে এ ঘটনা ঘটে গেলো। আমি নামাজ পড়ে এসে আর মেয়েকে পেলাম না। আপনাদের যাদের মেয়ে আছে, সন্তান আছে এরকম কুরুচিপূর্ণ, এ রকম পশুত্ব সুলভ আচরণকারীদের কাছ থেকে কিভাবে দূরে রাখবেন, আপনারা একটু ভেবে দেখবেন। এসব পশুর কাছ থেকে বাচ্চাদের রক্ষার চেষ্টা করুন। আমি হয়তো পারি নাই আমার মেয়েকে রক্ষা করতে । যেভাবে আমার মেয়েকে হত্যা করা হয়েছে আমরা কিভাবে ধৈর্য ধারণ করব। এই ঘটনায় আমার পরিবার পুরোটাই বিধ্বস্ত।

আরও পড়ুন : ‍মেয়ে হারনোর কষ্ট নিয়ে মর্গে তার মরদেহ কাটাছেড়া করতে দেখতে হয়েছে বাবকে!

মির্জাপুরে পুলিশ কনষ্টেবলসহ দুইজনের করোনা শনাক্ত

প্রতিনিধি, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে মহেড়া পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারের এক পুলিশ কনষ্টেবল ও গ্রীন টেক্সটাইল মিলের মহিলা শ্রমিক করেনায় আক্রান্ত হয়েছে।

মির্জাপুরে বাস চাপায় ট্রাকের হেলপার নিহত

প্রতিনিধি, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)

image

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বাস চাপায় ট্রাকের হেলপার নিহত হয়েছে। ৩ জুন বুধবার সকাল আটটার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার

চৌগাছায় বিলে ডুবে শিশুর মৃত্যু

প্রতিনিধি, চৌগাছা (যশোর)

image

উপজেলায় পানিতে ডুবে আমীর হামজা (৬) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে হাকিমপুর ইউনিয়নের মাঠ-চাকলা গ্রামের দ্বীন মোহাম্মদের ছেলে। একই ঘটনায় শিশির (৭) নামে আরেক শিশুকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে একই গ্রামের জাহিদুল ইসলামের ছেলে।

sangbad ad

চাটখিলে মানবিক সহায়তা কর্মসূচীর তালিকায় অনিয়মের অভিযোগ

প্রতিনিধি, চাটখিল (নোয়াখালী)

করোনাকালীন সময়ে মানবিক সহায়তা কর্মসূচীর তালিকা প্রণয়নে নগদ ২ হাজার ৫ শত টাকা প্রদানে চাটখিল পৌরসভার বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার নোয়াখালী জেলা প্রশাসকের কাছে এ ব্যাপারে অভিযোগ দায়ের

বগুড়ায় একদিনে আক্রান্ত ৫৭ জন

প্রতিনিধি, বগুড়া

image

জেলায় করোনা রোগীর সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। গত মঙ্গলবার একদিনে ৫৭জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ১৪জন পুলিশ ও একজন আইনজীবী রয়েছেন। এর মধ্যে বগুড়া সদর উপজেলায় ৪৫, সারিয়াকান্দিতে ১, শাজাহানপুরে ১ গাবতলীতে ৩, শেরপুরে ৫,

গোপালগঞ্জে নতুন করে আক্রান্ত ১৬ জন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, গোপালগঞ্জ

image

গত ২৪ ঘণ্টায় গোপালগঞ্জে নতুন করে আরও ১৬ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়েছে। বুধবার সকালে গোপালগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ এ তথ্য জানান। তিনি জানান, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সদরে ৪ জন, মুকসুদপুরে ৬, কোটালীপাড়ায় ৩, কাশিয়ানীতে ২ ও টুঙ্গিপাড়ায় ১ জন রয়েছে।

বিপাকে পড়েছেন বাংলাদেশে আটকে পড়া ভারতীয়রা

জেলা বার্তা পরিবেশক, রাজশাহী

image

করোনা পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশের সাথে ভারতের স্থলপথে (বর্ডার) যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। এতে করে রাজশাহীতে আসা ভারতীয়রা আটকে পড়েছে। এর মধ্যে তাদের অধিকাংশেরই ভিসার মেয়াদ ফুরিয়ে গেছে। ফলে এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছে আটকে পড়া ভারতীয়রা। একইভাবে ভারতে যাওয়া বাংলাদেশীরাও আটকে আছে সে দেশে।

করোনায় আসছে না ব্যাপারীরা আম নিয়ে শঙ্কায় চাষীরা

মো. শাফায়েত হোসেন, বান্দরবান

image

বান্দরবানে আম্রপালি, হাঁড়িভাঙ্গা, বারি আম-৪ এবং রাংগোয়াইসহ বিভিন্নজাতের আমের বাম্পার ফলন হলেও করোনার কারণে আম ব্যবসায়ীরা আম সংগ্রহ করতে না আসায় লোকসানের মুখে পরেছেন চাষীরা। ফলে আম উৎপাদন খরচ তুলতে পারবেন কিনা এ নিয়ে শঙ্কা ও হতাশা দেখা দিয়েছে চাষিদের মধ্যে। তারা সরকারিভাবে আম বিপণনের দাবি জানিয়েছে।

দুই জেলায় একই পরিবারের ৩ জনসহ নিহত ৮

সংবাদ ন্যাশনাল ডেস্ক

image

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বাস-রিক্সাভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের তিন জন নিহত হয়েছে। অপরদিকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বাস চাপায় ট্রাকের এক হেলপার মারা গেছে। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ও বুধবারের এসব ঘটনায় আরো দুই জন আহত হয়েছেন।

sangbad ad