• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

 

ইন্টারনেট সংযোগ অপসারণে ক্ষতিগ্রস্ত অনলাইন শিক্ষা ও ব্যবসা

নিউজ আপলোড : ঢাকা , সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০

সংবাদ :
  • ফারুক আলম
image

চলছে ওভারহেড ক্যাবল অপসারণের অভিযান

করোনা মহামারীর মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) পরিচ্ছন্ন শহর গড়তে বিদ্যুতের খুঁটিতে ঝুঁকিপূর্ণ ইন্টারনেট ও ডিস সংযোগ অপসারণে নামায় শিক্ষার্থীরা অনলাইন ক্লাস করতে পারছে না। ভোগান্তিতে পড়েছে হাজার হাজার শিক্ষার্থী। এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভুগছে অভিভাবক মহল।

একজন অভিভাবক ফোনে উদ্বেগ প্রকাশ করে সংবাদকে বলেন, তার ছেলেমেয়ে অনলাইন ক্লাস করছে। কিন্তু হঠাৎ ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় তার ছেলেমেয়ে অনলাইন ক্লাস করতে পারছে না। করোনার সময়ে এভাবে ইন্টারনেট সংযোগ অপসারণ করলে সব ধরনের ব্যবসা-বাণিজ্য বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে।

সরকার ঘোষিত করোনা মহামারীর ঝুঁকি এড়াতে বাসায় বসেই স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি অনলাইনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ক্লাস, চাকরিজীবীরা অফিস পরিচালনা, চিকিৎসকদের রোগী দেখা, ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করা এবং আদালতে ভার্চুয়ালভাবে সব কিছু ইন্টারনেটের দ্বারা পরিচালনা করছেন। এছাড়াও টেলিমেডিসিন, বীমা, আউটসোসিং, কলসেন্টার, সফটওয়্যার, ই-কর্মাস, ব্যাংক ও হাসপাতালের মতো জরুরি সেবা অনলাইনে দেয়া হচ্ছে। অনেকে আবার মানসিক চাপ কমাতে অনলাইনে দেশ-বিদেশে বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন, বিনোদন দেখছেন ও বিভিন্ন খবর পড়ছেন। করোনায় স্বাস্থ্য সুরক্ষা বজায় রাখতে মানুষের মধ্যে অনলাইন নির্ভরতা বাড়লে ডিএসসিসি ইন্টারনেট ও ডিস সংযোগ অপসারণে নেমেছে। এতে সব ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা দুর্ভোগে পড়েছেন।

ধানমন্ডি ও আনন্দবাজার এলাকাবাসীর শিক্ষার্থীরা জানান, ইন্টারনেট ও ডিস সংযোগ উচ্ছেদ অভিযানের আগে এলাকায় কোন ধরনের মাইকিং করা হয়নি। নোটিশও দেয়া হয়নি। হঠাৎ করে ইন্টারনেট ও ডিস সংযোগ অপসারণে শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাস মারাত্মকভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। অনেকেই স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল দেখতে পারছেন না। বাধ্য হয়ে অনেকে মোবাইল অপারেটরের ডাটা প্যাকেজ কিনে কিছু শিক্ষার্থী অনলাইন ক্লাস করছেন। অনেক শিক্ষার্থী বিড়ম্বনায় পড়েছে। মোবাইলে ডাটা কিনে ইউটিউবে অনলাইন ক্লাস করতে গিয়ে বিরক্তের মধ্যে পড়ছেন শিক্ষার্থীরা। কারণ ডাটা দিয়ে ইউটিউব ঠিকমতো চলছে না, ইউটিউবে বারবার লোডিং আসছে।

ধানমন্ডি, ফুলবাড়ী, গুলিস্তান, আনন্দবাজার ও বাংলাবাজার এলাকায় সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ইন্টারনেট সংযোগ অপসারণ করায় শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ ভোগান্তিতে পড়েছেন। শিক্ষার্থীরা অনলাইন ক্লাস করতে পারছে না। যারা অনলাইনে ব্যবসা করছেন তারাও চরম বিপাকে পড়েছেন। অনেকে মোবাইল অপারেটরদের উচ্চমূল্যের ইন্টারনেট প্যাকেজ কিনে সাময়িক কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) মো. তাজুল ইসলাম সংবাদকে বলেন, শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের মোবাইলে স্কুলের শিক্ষকরা ফোন দিয়ে লেখাপড়ার খোঁজখবর নিচ্ছেন। এছাড়া সিটি করপোরেশন যদি ইন্টারনেটের ক্যাবল কাটার বিষয়টি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নজরে আসেনি। এখন যেহেতু নজরে এসেছে এ ব্যাপারে মন্ত্রণালয়ে আলোচনা করা হবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (প্রশাসন) মনোয়ারা ইশরাত সংবাদকে বলেন, করোনার সময়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদানে সংসদ টেলিভিশন ও রেডিওতে সম্প্রচার করা হচ্ছে। সংসদ টেলিশন ও রেডিওতে লেখাপড়া করতে ইন্টারনেটের প্রয়োজন হয় না। সিটি করপোরেশন ইন্টারনেট ও ডিস সংযোগ অপসারণ করা শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় ব্যাঘাত ঘটবে সেটি নিশ্চিত।

বাংলাবাজারের বাসিন্দা শিক্ষার্থী তরিকুল ইসলাম সংবাদকে বলেন, করোনার কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ। গত মাস থেকে বিশ্ববিদ্যালয় সব ক্লাস-পরীক্ষা অনলাইনে হচ্ছে। কিন্তু হঠাৎ ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় ১০ আগস্ট সোমবার ক্লাস করতে পারেনি। মোবাইলে ডাটা কিনে দুই ঘণ্টার ক্লাস মুঠোফোনে করাও সম্ভব হয়নি। কারণ মুঠোফোনের ইন্টারনেটে খরচ বেশি, গতি কম। করোনার সময়ে ইন্টারনেটের ক্যাবল অপসারণের কোন দরকার ছিল না এ শিক্ষার্থী। আরেক শিক্ষার্থী গাজলা শাহীন বলেন, ইন্টারনেট সংযোগ অপসারণ করার বিষয়টি দু’একদিন আগেই মাইকিংয়ের দরকার ছিল। কারণ অনলাইনে অনেকের গুরুত্বপূর্ণ কাজ থাকে, বিশেষ করে অনলাইন ক্লাসে কিছু লেকচার অন্তত ডাউনলোড করে রাখা যেত। কিন্তু হঠাৎ ইন্টারনেট সংযোগ অপসারণে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। মোবাইলে ডাটা কিনে ইউটিউব চালানো সম্ভব নয়। কারণ ডাটায় ইউটিউবের ধীরগতি। এখন কিভাবে অনলাইনে ক্লাস করবেন তা নিয়ে চিন্তিত।

ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরের সম্মুখ ধানমন্ডি ৭ নম্বর রোডের ২৩ নম্বর বাড়ির সব ইন্টারনেট ও ডিস সংযোগ বিচ্ছন্ন হওয়ায় ওই বাড়ির বাসিন্দা আশরাফ তালুকদার সংবাদকে বলেন, সরকার করোনার মধ্যে মানুষকে বাসায় থাকার পরামর্শ দিচ্ছে। ছেলেমেয়েরা বাসার বাইরে পড়ালেখার জন্য বের হতে পারছে না। অনলাইন অথবা টেলিভিশনে ক্লাস করছে কিন্তু হঠাৎ ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অভিভাবকরা চিন্তায় পড়েছেন। খেলাধুলার জন্য ছেলেমেয়ে পার্ক ও মাঠে যেতে পারছে না। বাসায় বসে অনলাইনে গেমস ও টেলিভিশনে বিভিন্ন অনুষ্ঠান দেখে সময় পার করছে। এখন সেটাও বন্ধ।

শিক্ষাবিদরা মনে করছেন, করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে মানুষ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বাসায় বসে অনলাইন নির্ভরতা বাড়তে থাকলে ডিএসসিসি ইন্টারনেট সংযোগ অপসারণ করছে। যা সংস্থাটির একটা আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। এই সিদ্ধান্ত থেকে সিটি করপোরেশনকে সরে আসা দরকার।

করোনার সময়ে ইন্টারনেটের সংযোগ অপসারণের বিষয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরোগবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ডা. সিফাত-ই-সাইদ সংবাদকে বলেন, করোনার সময়ে শিক্ষার্থীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, খেলার মাঠ কিংবা পার্ক বন্ধ থাকায় বড়দের মতোই মানসিক চাপে আছে শিক্ষার্থীরা। বাসায় বসে অনলাইন ক্লাস ও টেলিভিশনে বিনোদন দেখে কিছুটা মানসিক চাপ কমছে শিক্ষার্থীদের। কিন্তু এখন ইন্টারনেট কিংবা ডিস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা মোটেই সমর্থন করেন না তিনি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ও ইন্টারনেট ক্যাবল অপাটরদের কাছ থেকে জানা গেছে, কয়েক দিনে ধানমন্ডি, কলাবাগন, ফুলবাড়িয়া, গুলিস্তানসহ বিভিন্ন এলাকায় ৫০ হাজার ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে ডিএসসিসি। এতে ক্যাবল অপারেটরদের কমবেশি ৩ কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে। করোনার সময়ে যেন ইন্টারনেট সংযোগ অপসারণ বন্ধ থাকে সেজন্য গত ৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার ডিএসসিসি মেয়রের কাছে লিখিত আবেদন করে ইন্টারনেট ও ডিস ব্যবসায়ীরা।

আনন্দবাজারের লায়লা আক্তার চাকরি করতে বেসরকারি একটি কোম্পানিতে। করোনার মধ্যে চাকরি হারিয়ে আর্থিক অনটনে পড়েন। দুশ্চিন্তায় পড়ে যান, এখন তিনি কি করবেন? শেষমেষ কোন উপায় খুঁজে না পেয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাসায় বসে অনলাইনে কাপড় বিক্রি করবেন। সেজন্য দুই মাস আগে বাসায় ইন্টারনেট সংযোগ নেন লায়লা আক্তার। অনলাইনে কাপড় বিক্রি করে কোন রকম তার সংসার চলছিল। কিন্তু বাধ সেধেছে ইন্টানেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায়। লায়লা আক্তারের মতে ধানমন্ডি, ফুলবাড়ী, গুলিস্তান, আনন্দবাজার ও বাংলাবাজার এলাকায় যারা অনলাইনে ব্যবসা করেন ইন্টারনেট সংযোগ কাটা পড়ায় সবাই ভোগান্তিতে পড়েছেন।

বাংলাদেশ ইন্টারনেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আনোয়ার হোসেন আনু সংবাদকে বলেন, নগরের সৌন্দর্য বাড়াতে ইন্টারনেট ও ডিস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার উদ্যোগ নেয়ার আগে ক্যাবল অপারেটদের ব্যবসার বিষয়টি দেখতে হবে। কারণ মাটির নিচ দিয়ে ইন্টারনেট সংযোগ দেয়ার বিষয়টি এখন বাস্তবায়ন হয়নি। বিকল্প ব্যবস্থা না রেখেই কোটি কোটি টাকার ক্যাবল নষ্ট করলে ব্যবসায়ীরা লোকসানে পড়বেন।

ক্যাবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (কোয়াব) প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এসএম আনোয়ার পারভেজ সংবাদকে বলেন, ডিএসসিসির মেয়র নগরের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য ইন্টারনেট ও ডিস ক্যাবল কেটে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ক্যাবল অপারেটররাও চায় নগরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাক। কিন্তু ওপর দিয়ে ছাড়া ইন্টারনেট ক্যাবল বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেয়া ছাড়া উপায় নেই। কারণ মাটির নিচ দিয়ে বাড়ি বাড়ি ইন্টারনেট ক্যাবল সংযোগ পৌঁছানোর কাঠামো হয়নি। সিটি করপোরেশন ক্যাবল কাটায় অপারেটরদের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশে ক্যাবল অপারেটরদের জন্য ক্যাবল সংযোগের আলাদা জায়গা করে দেয়া আছে। আমরাও (ক্যাবল অপারেটর) সবসময় বলেছি- ক্যাবল অপারেটরদের জন্য সড়কের পাশ দিয়ে নির্ধারণ জায়গা করে দিক সিটি করপোরেশন। ক্যাবল অপারেটররা সিটি করপোরেশনের অনুমতি ও আর্থিক ফি দিতে রাজি রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, করোনা মহামারীতে ইন্টারনেট ব্যবসায়ীদের আর্থিক অবস্থা খারাপ। গ্রাহকদের কাছ থেকে কালেকশন আসছে না। বিদ্যুৎ বিল, অফিস ভাড়া, কর্মচারীদের বেতন দিতে হিমশিমে পড়েছে। অনেক কষ্টে সার্ভিসটা টিকিয়ে রেখেছি। বাসায় বসে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা, অফিস, আদালত, ব্যাংক বীমা সবই অনলাইনে চলছে। ডিএসসিসির মেয়রের কাছে সব ক্যাবল অপারেটরদের দাবিÑ করোনাকালীন মুহূর্তটা বিবেচনায় নিয়ে যেন ক্যাবল কাটা থেকে বিরত থাকেন।

ডিএসসিসির সূত্রে জানা গেছে, ডিএসসিসির মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস সিটি করপোরেশনের ৩০ জুলাই সংস্থার বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে ইন্টারনেট ও ডিসের ক্যাবল অপসারণের ঘোষণা দেন। ৫ আগস্ট থেকে ক্যাবলের সংযোগ অপসারণে ডিএসসিসির ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে নামে।

এদিকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং সার্কেলের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ফরহাদ সংবাদকে বলেন, ডিএনসিসির আওতাধীন গুলশানে অক্টোবরের মধ্যে সব ইন্টারনেট ক্যাবল মাটির নিচ দিয়ে চলে যাবে। আগামী দুই বছরে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পুরো এলাকায় সব ধরনের ক্যাবল মাটির নিচ দিয়ে নেয়া হবে। ক্যাবল অপারেটররা সেই সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছে।

করোনা সময়ে ইন্টারনেট সংযোগ অপসারণের বিষয় সম্পর্কে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করা হলে তার দেখা পাওয়া সম্ভব হয়নি। এমনকি মেয়রের মুঠোফোনে ম্যাসেজ ও ফোন করেও বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।

দোহারে ২ জনের করোনা শনাক্ত

প্রতিনিধি, দোহার(ঢাকা) :

image

ঢাকার দোহার উপজেলায় নতুন করে আরও ২ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

কেশবপুরে হোটেল বেকারি মালিককে জরিমানা

প্রতিনিধি,কেশবপুর (যশোর)

image

কেশবপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরির অপরাধে ঢাকা বেকারি ও

পাথরঘাটায় গাঁজা চাষী গ্রেফতার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক,বরগুনা:

image

জেলার পাথরঘাটা থেকে গাজা গাছসহ একজন গাজা চাণিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। র‌্যাব-৮

sangbad ad

অজ্ঞাত যুবকের মস্তকবিহীন মরদেহ উদ্ধার

প্রতিনিধি,(পিরোজপুর)

image

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার পৈকখালী গ্রামের একটি খাল থেকে মঙ্গলবার দুপুরে মস্তক বিহীন

৩৮ হাজার ইয়াবাসহ দুইজন আটক

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

৩৮ হাজার ৬৪০ পিস ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন

করোনামুক্ত সিলেটের মেয়র আরিফুল হক

প্রতিনিধি, সিলেট

image

সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী করোনাভাইরাস থেকে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে

পর্নোগ্রাফির অভিযোগে মামলা ২ যুবক গ্রেপ্তার

প্রতিনিধি,সরাইল,(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)

image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে প্রবাসীর স্ত্রীর ছবি পর্নোগ্রাফি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার

চাঁপাইনবাবগঞ্জে চাকরি দেয়ার নামে ভুয়া মেজর গ্রেফতার

জেলা বার্তা পরিবেশক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

image

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে সেনাবাহিনীতে চাকরি দেয়ার নামে ৩৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার দায়ে

নৌকা ডুবানো নুর মোহাম্মদ এবারে নৌকার মাঝি

প্রতিনিধি, তালতলী (বরগুনা)

image

নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় আলীগের ভোট ভাগাভাগিতে সেবারে নিজে ডুবে এবং নৌকাকে