• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৯

 

আহমদ শফির বক্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ১২ জানুয়ারী ২০১৯

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

মেয়েদের স্কুলে না পাঠানো নিয়ে হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফির বক্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। ক্ষোভ ও প্রতিবাদ প্রকাশ করা হচ্ছে সারাদেশ থেকে।

শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) চট্টগ্রামের হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার বার্ষিক মাহফিলে হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফি বলেন, আপনাদের মেয়েদের স্কুল-কলেজে দেবেন না। বেশি হলে ক্লাস ফোর বা ফাইভ পর্যন্ত পড়াতে পারবেন। বিয়ে দিলে স্বামীর টাকা পয়সা হিসাব করতে হবে। চিঠি লিখতে হবে স্বামীর কাছে। আর বেশি যদি পড়ান, পত্রপত্রিকায় দেখছেন আপনারা, মেয়েকে ক্লাস এইট, নাইন, টেন, এমএ, বিএ পর্যন্ত পড়ালে ওই মেয়ে আপনার মেয়ে থাকবে না। অন্য কেহ নিয়ে যাবে। পত্রপত্রিকায় এ রকম ঘটনা আছে কিনা? ওয়াদা করেন। বেশি পড়ালে মেয়ে আপনাদের থাকবে না। টানাটানি করে নিয়ে যাবে আরেকজন পুরুষ।

আহমদ শফির বক্তব্যের ফলে দেশের বিভিন্ন মহল থেকে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। শাহ আহমেদ শফির বক্তব্য সম্পর্কে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এশিয়াটিক সোসাইটির সভাপতি মাহফুজা খানম বলেন, আহমদ শফি প্রায় ১৫ হাজার মানুষকে ওয়াদা করিয়েছেন যাতে তারা তাদের মেয়েদের শিক্ষিত না করে তোলে। এর মাধ্যমে তিনি শুধু ওই পরিবারগুলোকে নয় পুরো দেশের মেরুদণ্ড ভেঙে দেয়ার চেষ্টা করেছেন, পুরো নারী সমাজকে অপমান করেছেন। তাকে এই অপরাধের জন্য ক্ষমা চাইতে হবে। না হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আমরা সবাই আন্দোলন করব। পাশাপাশি আমি আশা করছি এই বিষয়ে সরকার এবং প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বক্তব্য দেয়া হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আআমস আরেফিন সিদ্দিকী বলেন, আহমদ শফির বক্তব্য শিক্ষাবিরোধী, প্রগতীবিরোধী, সংবিধানবিরোধী এমনকি ধর্মবিরোধী। কারণ আমাদের ধর্ম প্রত্যেক মানুষের অধিকার রক্ষা এবং জ্ঞান অর্জনের প্রতি গুরুত্বারোপ করেছে। আমাদের মাঝে এমন কিছু মানুষ সবসময় থাকে যারা সবসময় সমাজকে পশ্চাদমুখী করতে ষড়যন্ত্র করে। এদের এমন দায়িত্বহীন মন্তব্য অতীতের মতো সবসময় প্রত্যাখান হবে। তবে আমি আশা করব ভবিষ্যতে যেন কেউ এই ধরনের দায়িত্বহীন মন্তব্য না করেন।

মহিলা পরিষদের সভাপতি আয়শা খানম বলেন, নারীদের নিয়ে আহমদ শফি এর আগেও অনেক অশ্লীল এবং অশ্রাব্য মন্তব্য করেছেন। তার এবারের মন্তব্য আমাদের শাষণতন্ত্রের বিরোধী। তিনি আমাদের ১০০ বছর পিছিয়ে নিয়ে যেতে নারীদের শিক্ষা থেকে বঞ্চিত করতে চাইছে। অথচ আমাদের বর্তমান উন্নয়নে নারী শিক্ষা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। তবে উদ্বেগের বিষয় তিনি এই ধরনের মন্তব্য করার সাহস কোথা থেকে পাচ্ছে। আর আমরা শিক্ষা ব্যতীত কোন ধরনের নারীর ক্ষমতায়নের কথা বলছি।

এদিকে এ বিষয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, যিনি এই মন্তব্যটা করেছেন, তিনি তার ব্যক্তিগত মতামত দিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশের শিক্ষানীতি প্রণয়ন বা শিক্ষা, পরিচালনা বা শিক্ষা খাতে কোন নির্বাহী দায়িত্বে নেই। যেহেতু যেকোন নাগরিকেরই বাক্স্বাধীনতা আছে, তার মনের ভাবনা প্রকাশ করার অধিকার আছে। তিনিও দেশের নাগরিক হিসেবে তার নিজের একটা বিশ্লেষণ দিয়েছেন। সেটা আমাদের রাষ্ট্রীয় নীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। আমি সম্মানের সঙ্গে বলব, আমরা সবাই যারা বাকস্বাধীনতার চর্চা করছি, আমরা যেন এই বিষয়টা মাথায় রাখি যে সংবিধান অনুসারে আমাদের সবার সমান অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে।

উপমন্ত্রী বলেন, আমরা যেন বৈষম্যমূলক মন্তব্য না করি, এটা আমি সবার কাছে আহ্বান জানাব। যেহেতু তিনি কোন ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের অবস্থানে নেই, তিনি তার ব্যক্তিগত অভিমত দিয়েছেন। কিন্তু তিনি অভিমত দিলেই সেটা রাষ্ট্রীয় নীতিতে অন্তর্ভুক্ত বা প্রতিফলিত হবে, সেটা চিন্তা করার অবকাশ নেই। সমাজে এ রকম অনেকেই অনেক ধরনের অভিমত দেন।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নওফেল বলেন, সমালোচনাটা তো আমরা নিজেরাই এনেছিলাম যে পাঠ্যপুস্তকে সাম্প্রদায়িকীকরণ বা বিভাজন সৃষ্টি করা, কোমলমতিদের মানসিকতায় যদি আমরা এটা দিয়ে দিই, তাহলে দীর্ঘমেয়াদে গিয়ে সমাজের স্থিতিশীলতা নষ্ট হবে। আওয়ামী লীগ ধর্মনিরপেক্ষ রাজনৈতিক আদর্শে বিশ্বাস করে। বাংলাদেশের সংবিধান ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র গঠন করতে আমাদের বাধ্য করেছে। আমরা অবশ্যই ইসলামের অনুশাসন মেনে চলব, সনাতন ধর্মাবলম্বীরা তাদের অনুশাসন মেনে চলবেন। অসাম্প্রদায়িক, ধর্মনিরপেক্ষ কারিকুলাম অত্যন্ত প্রয়োজন। পাশাপাশি ধর্মীয় শিক্ষার মানোন্নয়নও খুবই প্রয়োজন। এতে সামাজিক অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি হবে না। পড়াশোনা যদি সাম্প্রদায়িকীকরণ করা হয়, তাহলে অদূর ভবিষ্যৎ নয়, নিকট ভবিষ্যতেও আমাদের জন্য বিপজ্জনক হয়ে পড়বে।

মাওলানা শফির বক্তব্যের বিরোধিতা করে ইসলামী ঐক্যজোটের একাংশের চেয়ারম্যান মাওলানা মেজবাউর রহমান চৌধুরী বলেন, আল্লামা শফি যে বক্তব্য দিয়েছেন সেটা ইসলামের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। ইসলাম নারীদের শিক্ষিত করার ব্যাপারে উৎসাহিত করেছে। বেশি গুরুত্ব দিয়েছে। শিক্ষিত না হলে তারা সাবলম্বী হতে পারবেন না। তাই নারীদের অবশ্যই শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে। কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদ জামাতের ইমাম ও জামিয়াতুল ওলামা’র চেয়ারম্যান মাওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসুদ বলেন, ইসলামে যেখানে শিক্ষাকে ফরজ করা হয়েছে সেখানে এ বক্তব্য ইসলামের সম্পূর্ণ পরিপন্থী। এ বক্তব্যের মাধ্যমে জাতি বিভ্রান্ত হবে। নারীরা শিক্ষিত হলে জাতি শিক্ষিত হবে। দেশ এগিয়ে যাবে।

কাঁঠাল মরিচের মত নারিকেলও ফাঁকি দিতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীদের!

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

পুলিশ ও র‌্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সাঁড়াশি অভিযানের মধ্যেও

কসবা সীমান্ত : রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের জম্মু-কাশ্মীরের হেলথ ও শরণার্থী কার্ড

মো. সাদেকুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার কাজিয়াতলী এলাকার বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের ২০২৯

ইংরেজী ভাষায় লেখা সাইনবোর্ডের বিরুদ্ধে ডিএনসিসির অভিযান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সাইনবোর্ডে বাংলায় লেখা নিশ্চিত করতে অভিযান চালিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের

sangbad ad

৫ কোম্পানির পানি মানহীন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

আদালতের নির্দেশে বাজারে বোতলজাত ১৫টি কোম্পানির খাবার পানি পরীক্ষা করে পাঁচটি

চর অঞ্চল উন্নয়নে আলাদা কর্তপক্ষের দাবি : ন্যাশনাল চর অ্যালায়েন্স

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

দেশের চর এলাকায় বসবাসরত মানুষের উন্নয়নে আলাদা কর্তৃপক্ষ গঠনের দাবি জানিয়েছে ন্যাশনাল

রাজধানীতে নিরাপত্তাকর্মী খুন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রাজধানীর বারিধারার জে ব্লকে যমুনা ব্যাংকের এটিএম বুথে শামীম (২০) নামে এক নিরাপত্তাকর্মী

ঢাকাসহ ঢাকার বাইরের হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসক অনুপস্থিত ৪০ শতাংশ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

রাজধানীসহ দেশের ৮জেলার ১১টি সরকারি হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে হাসপাতালগুলোতে

ঠাকুরগাঁও রামরায় দীঘি অতিথি পাখির স্বর্গরাজ্য

আখতার হোসেন রাজা, ঠাকুরগাঁও

image

রং-বেরঙের অতিথি পাখির কলকাকলীতে মুখরিত হয়ে উঠেছে ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল

বিএসএমএমইউতে জরায়ুমুখ স্তন ক্যানসার প্রতিরোধে মাসব্যাপী কর্মসূচি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জরায়ুমুখ স্তন ক্যানসার সংক্রান্ত সেবার পরিধি ও মান উন্নয়ন এবং জনসচেতনতা বৃদ্ধির

sangbad ad