• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯

 

অবহেলায় নিশ্চিহ্ন হচ্ছে চট্টগ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ক্যাম্প

নিউজ আপলোড : ঢাকা , রোববার, ২৩ জুন ২০১৯

সংবাদ :
  • মোহাম্মদ সেলিম, লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম)
image

লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম) : পদুয়ার হানিফার চরের মুক্তিযোদ্ধা ক্যাম্প-সংবাদ

মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার একমাত্র মুক্তিযোদ্ধা ক্যাম্প লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া হানিফার চর ক্যাম্পটি যুদ্ধের ৪৭ বছর পরও কারও নজরে আসেনি। মুক্তিযুদ্ধকালীন স্মৃতি হিসেবে এখন শুধু রয়েছে একটি ভাঙ্গা মাটির ঘর। মুক্তিযোদ্ধাদের কদর বাড়লেও যে ক্যাম্পটি হতে মুক্তিযুদ্ধের সময় শত শত অপারেশন পরিচালিত হতো সেই ক্যাম্পটির কথা ভুলতে বসেছে এলাকাবাসী। রাষ্ট্রীয়ভাবে এই ক্যাম্পটির স্মৃতি ধরে রাখার জন্য কেউ কোনদিন চেষ্টা তদবির করেনি। ফলে যুদ্ধের ৪৭ বছর পার হলেও অযতœ অবহেলায় রয়েছে এই ক্যাম্পটি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা যুদ্ধ ঘোষণা দেয়ার পর পরই লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদের হাজারবিঘা গ্রামের সফিউর রহমান সওদাগর এলাকার তরুণদের নিয়ে মুক্তিবাহিনী গঠন করেন। বিষয়টি জানতে পেরে স্থানীয় রাজাকাররা পাকবাহিনীর সহায়তায় এই গ্রামের ওপর হামলা করে। এতে অনেকেই হতাহত হয়। তারা যাবার সময় পাশর্^বর্তী গ্রাম মল্লিক ছোবহান এলাকার একমাত্র হিন্দুপাড়াটিতে আক্রমণ করে। পাকবাহিনীর গুলিতে ৩ জন নিহত ও প্রায় ১২ জন গুলিবিদ্ধ হন। এছাড়াও ব্যাপক লুটপাট চালায়, ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়। হিন্দু পাড়ার প্রায় শতাধিক পরিবার গৃহহীন হয়ে পড়ে। ঘটনার পরদিনই সফিউর রহমান সওদাগর হিন্দুপাড়ার সকল লোকদের নিজের বাড়িতে নিয়ে আসেন এবং নিজ বসতবাড়ির উঠানে ছোট ছোট তাবু তৈরি করে তাদের থাকার ব্যবস্থা করেন। এলাকাবাসীদের সহায়তা নিয়ে তাদের খাবারের ও ব্যবস্থা করেন। বাড়িতে মহিলা, বৃদ্ধ ও শিশুদের রেখে কয়েকদিন পর স্থানীয় শতাধিক যুবক ও তরুণদের নিয়ে সফিউর রহমান তার খামার বাড়ির দিকে রওনা হন। পদুয়া এলাকার গভীর ঘন জঙ্গলের মধ্যে খামার বাড়িটি অবস্থিত ছিল। তাছাড়া বান্দরবান পার্বত্য জেলার সীমানাতেই এটির অবস্থান ছিল। যাবার সময় সফিউর রহমান সওদাগর তার স্ত্রী কন্যাদেরও সেখানে নিয়ে যান। তারা সেখানে মুক্তিযোদ্ধাদের খাবার রান্না করতেন। প্রায় শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা সেখানে নিয়মিত অবস্থান করতেন। পরবর্তীতে সেখান থেকে বিভিন্ন ক্যাম্পে গিয়ে আশ্রয় নিতেন। বান্দরবান ও দক্ষিণ চট্টগ্রামের এলাকাগুলাতে অপারেশন হতো এই ক্যাম্প হতেই। মরহুম শফিউর রহমান সওদাগর, তৎকালীন এমএনএ আবু ছালেহসহ শীর্ষস্থানীয় অন্যান্য মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক এ ঘাটিতে নেতৃত্ব দেন। এছাড়াও ভারতীয় কমানন্ডারগণও হেলিকপ্টার নিয়ে এসে ক্যাম্পটি পরিদর্শন করতেন। ক্যাম্পের পূর্ব পার্শ্বে পাহাড়ের ওপর মিত্র বাহিনীর যুদ্ধের হেলিকপ্টার অবতরণ করত এবং যুদ্ধের অস্ত্রশস্ত্র মুক্তিবাহিনীর কাছে সরবরাহ করত এবং মিত্রবাহিনীর সেনা কর্মকর্তারা খোঁজ-খবর নিয়ে দিক-নির্দেশনা দিতেন। অপরদিকে, মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের লোকেরা গোপনে-গোপনে খাদ্য ও রসদ সরবরাহ করতেন মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য। যুদ্ধ শেষে সফিউর রহমান সওদাগর এলাকায় এসে আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করেন। সেই থেকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৬ সালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মুক্তিযুদ্ধ ও পরবর্তীকালে আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করতে গিয়ে এক সময়কার চট্টগ্রামের খ্যাতিমান সফল ব্যবসায়ী নিঃস্ব হয়ে টাকার অভাবে প্রায় বিনা চিকিৎসায় মারা যান। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তিনি একই স্কুলে পড়তেন। যার কারণে তিনি বঙ্গবন্ধুর খুব কাছের লোক ছিলেন। পদুয়ার হানিফার চরের তার খামার বাড়ি মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত। বর্তমানে এ খামার বাড়ি স্মৃতির বেদনায় শোকাহত হয়ে নীরবে ডুকরে-ডুকরে কাঁদছে। দক্ষিণ চট্টগ্রামের সর্বকনিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার হোসেন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমাদের পুরো পরিবারটি মুক্তিযুদ্ধ ও আওয়ামী লীগ রাজনীতিতে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছি। আমার চাচা মরহুম সফিউর রহমান সওদাগর রাজনীতি করতে গিয়ে নিজের ব্যবসা,জমি বিক্রি করে নিঃস্ব হয়ে প্রায় বিনা চিকিৎসায় মারা গিয়েছেন। কেউ খবর পর্যন্ত নেয়নি।

বেড়েছে পাসের হার, জিপিএ-৫

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষায় এবার পাসের হার ও জিপিএ-৫ এর সংখ্যা বেড়েছে। এ পরীক্ষায় ১০টি শিক্ষা

নবীনগরে ড্রেজারে বালি উত্তোলন ঝুঁকিতে বেড়িবাঁধসহ কয়েক গ্রাম

প্রতিনিধি, নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া)

image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শ্যামগ্রাম ইউনিয়নে লোড ড্রেজারের বালু উত্তোলনের ফলে বেড়িবাঁধসহ কয়েকটি গ্রাম মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ

ফেঁসে যাচ্ছেন শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অসাধু কর্মকর্তারা এবং নিয়োগ ও ভর্তি বানিজ্যের সিন্ডিকেট

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নিয়োগসহ বিভিন্ন ইস্যুতে জারি করা বিতর্কিত আদেশে ফেঁসে যাচ্ছেন শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অসাধু কর্মকর্তারা। ওই

sangbad ad

বধ্যভূমি থেকে শহীদদের নামফলক উধাও

প্রতিনিধি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া

image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার ধর্মতীর্থ এলাকার বধ্যভূমি থেকে শহীদদের নামফলক কে বা কারা নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের

মানুষ মানুষের জন্য : আব্দুল্লাহর হৃৎপিণ্ডের ফুটো সারবে হাত বাড়ালে সবাই

প্রতিনিধি, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)

image

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে আড়াই বছরের শিশু আব্দুল্লাহকে বাঁচাতে সহযোগিতার

সাত গ্রামের ভরসা ভাঙা কাঠের পুল

গনেশ পাল, মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট)

image

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে জিউধরা ইউনিয়নের কুরুপের ধাইড় ডেউয়াতলা পদ্মপুকুর পাড়ের খালের সংযোগের পারাপারের ভাঙ্গা কাঠের পুলটি

কিশোরগঞ্জে একাধিক সর. কার্যালয় জলাবদ্ধ

জেলা বার্তা পরিবেশক, কিশোরগঞ্জ

image

কিশোরগঞ্জ জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকায় কয়েকদিনের বৃষ্টিতে ভয়াবহ জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। পুরাতন কালেক্টরেট এলাকার কয়েকটি

ডিজিটাল বাংলাদেশের গ্রামীণ চিত্র : বাগেরহাটের সাইনবোর্ড-কচুয়া সড়ক চষাক্ষেত! ভোগান্তি

আজাদুল হক, বাগেরহাট

image

সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্তব্য কাজে উদাসীনতার কারণে বাগেরহাটের সাইনবোর্ড-কচুয়া উপজেলা সদরের আঞ্চলিক মহাসড়কটি

৬ ব্যাংক ও ২ আর্থিক প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ সমন্বিত লিখিত পরীক্ষা বাতিল

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বাংলাদেশ ব্যাংকের তত্ত্বাবধায়নে ৬টি ব্যাংক ও ২টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানে এক হাজার ২২৯ জন সিনিয়র অফিসার নিয়োগে অনুষ্ঠিত সমন্বিত

sangbad ad