• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০

 

অকল্পনীয় সংখ্যায় কুকুরের কারণে পযর্টকসহ সেন্টমার্টিনবাসীরা রীতিমতো আতঙ্কে

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯

সংবাদ :
  • জসিম সিদ্দিকী, কক্সবাজার
image

কক্সবাজারের টেকনাফ সেন্টমার্টিনে কুকুরের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে পর্যটক এবং দ্বীপের বাসিন্দারা। প্রায় ১০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের ছোট্ট এই দ্বীপে ৫ হাজারের মতো কুকুর রয়েছে বলে স্থানীয়দের দাবি। যে দ্বীপে প্রায় ১০ হাজার মানুষের বসবাস সেখানে এতো কুকুর পর্যটক এবং স্থানীয়দের রীতিমত ভাবিয়ে তুলছেন। এসব কুকুর বেশিরভাগই বেওয়ারিশ বলে জানা গেছে। এদিকে কুকুরের কারণে দ্বীপের অনেক অভিভাবক, ছেলে-মেয়েদের স্কুল মাদরাসায় পাঠাতেও ভয় পাচ্ছেন। জানা যায়, দ্বীপের বাজার, সী-বীচ এবং জেটির পার্শ্ববর্তী এলাকায় বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব বেশি রয়েছে। বিষয়টিকে পর্যটকসহ স্থানীয় বাসিন্দারা পর্যটনের জন্য ক্ষতির কারণ হিসেবে দেখছেন। পর্যটকরা ভোর এবং বৈকালিন সময়ে সমুদ্রে অবাধে বিচরণ করতে পারে। সেই জন্য দ্রুত সময়ে কুকুর নিধন প্রক্রিয়া শুরুর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। দ্বীপের জনপ্রতিনিধিরা জানান, গত কয়েকবছর ধরে কুকুর নিধন প্রক্রিয়া বন্ধ রয়েছে। এই কারণে কুকুরের সংখ্যা বহুগুণ বেড়ে গেছে।

চট্টগ্রাম থেকে বেড়াতে আসা এনজিও কর্মী শাহাদত হোছাইন জানান, সেন্টমার্টিনের মতো এত ছোট জায়গায় এতো কুকুর! যা একেবারেই অকল্পনীয়। কুকুরের জ্বালায় বীচে ঘুরাঘুরি করাটা আতঙ্কের ব্যাপার। দ্বীপে বেড়াতে আসা আরেক পর্যটক জানান, কুকুরে শঙ্কিত পর্যটকরা। জীবনেও দেখিনি এত কুকুর! জনধিক বিবেচনায় তিনি কুকুর নিধনের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

সেন্টমার্টিন ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ জানান, দ্বীপে প্রায় ৫ হাজারেরও বেশি বেওয়ারিশ কুকুর রয়েছে। এসব কুকুরের কারণে পযর্টকসহ স্থানীয়রা রীতিমতো আতঙ্কে রয়েছে। তিনি বিষয়টি জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত সভায় একাধিকবার উত্থাপন করেছেন জানিয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরের বাঁধার কারণে কুকুর নিধন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না বলে জানান।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, আইনী জটিলতার কারণে দ্বীপের বেওয়ারিশ কুকুর নিধন করা যাচ্ছে না। তবে তিনি পর্যটক এবং স্থানীয়দের স্বার্থে বিকল্প ব্যবস্থাপনার কথা জানান।

এই বিষয়ে জানতে পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নুরুল আমিনের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কুকুর নিধনের বিষয়ে পরিবেশের কোন বাধা নেই বলে জানান।

আটক চার জুয়াড়িকে ছেড়ে দিলো পুলিশ!

প্রতিনিধি, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)

image

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে জুয়া খেলার সরঞ্জাম ও টাকাসহ রাতে আটকের পর দিনে চার জুয়াড়িকে ছেড়ে দেওয়ার অভিয়োগ পাওয়া গেছে। বর্ষাকাল

প্রবল বৃষ্টিতে ভেসে গেছে শতাধিক পুকুরের মাছ

প্রতিনিধি, সাটুরিয়া (মানিকগঞ্জ)

image

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ার বালিয়াটি ইউনিয়নের জমিদার বাড়ির চারপাশের শতাধিক পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পরেছে

টয়লেট না থাকায় রোগী শূন্য ওয়ার্ড! রয়েছে আরও সমস্যা!

প্রতিনিধি, বটিয়াঘাটা (খুলনা)

image

বটিয়াঘাটা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের তৃতীয় তলার পুরুষ ওয়ার্ডে কোন টয়লেট বা বাথরুম না থাকায় রোগী শূন্য হয়ে পড়েছে পুরুষ ওয়ার্ড। বটিয়াঘাটা

sangbad ad

কাঁচা মরিচের কেজি ২২০ টাকা

রামপ্রসাদ সরকার দীপু, মানিকগঞ্জ

image

মানিকগঞ্জের ৭টি উপজেলাতেই বেড়েছে কাঁচা মরিচের দাম। বর্তমানে জেলার বিভিন্নহাট বাজারে প্রতি কেজি বিন্দু মরিচ ২০০ টাকা থেকে ২২০ টাকা, ছিট মরিচ ১৮০ টাকা থেকে ২০০ টাকা

করোনায় আক্রান্ত রংপুর সিটি মেয়র ও তাঁর স্ত্রী

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

করোনায় আক্রান্ত হলেন রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান ও তাঁর স্ত্রী জেলী রহমান। রংপুর জেলা সিভিল সার্জন হিরম্ব কুমার রায় মঙ্গলবার এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,

চসিক প্রশাসক হলেন খোরশেদ আলম

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

image

করোনাভাইরাসের মহামারীর মধ্যে নির্ধারিত সময়ে ভোট করতে না পারায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে প্রশাসক বসিয়েছে সরকার। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ

ঈশ্বরদীর চামড়ার বাজার মন্দা

প্রতিনিধি, ঈশ্বরদী (পাবনা)

image

দাম কমে যাওয়ায় উত্তরাঞ্চলের অন্যতম বৃহত্তম ঈশ্বরদীর চামড়া বাজারে মন্দাভাব দেখা দিয়েছে। একটি চামড়া বিক্রি করে ১ কেজি

ফুলবাড়ীতে করোনায় আক্রান্ত শিক্ষক

প্রতিনিধি, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর)

image

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীর আশিষ কুমার সাহা নামের এক সহকারী প্রধান শিক্ষক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। অভিযোগ তিনি করোনাকালে সরকারের বিধি নিষেধ অমান্য করেন বাড়ি বাড়ি

বাগেরহাটে নেই নতুন শনাক্ত, সুস্থ্য ৬০

প্রতিনিধি, বাগেরহাট

image

বাগেরহাট জেলায় গত ২৪ ঘন্টার করোনায় নতুন আক্রান্তের খবর পাওয়া যায় নি। তবে মারা গেছেন দুই জন। এ সময় সুস্থ হয়েছেন ৬০ জন। বাগেরহাট সিভিল সার্জন ডাঃ কে এম হুমাউন