• banlag
  • newspaper
  • epaper

ঢাকা , সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

 

পদ্মায় তীব্র স্রোত-নাব্যতা সংকট : দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে ফেরি চলাচল বন্ধ

নিউজ আপলোড : ঢাকা , শনিবার, ০৫ অক্টোবর ২০১৯

সংবাদ :
  • মাহমুদ আকাশ
image

ফেরি ও লঞ্চশূন্য দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাট-সংবাদ

পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়া তীব্র স্রোতের সৃষ্টি হয়েছে। এতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল সাময়িক বন্ধ রয়েছে। তীব্র স্রোতের মধ্যে নাব্যতা সংকটে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে বিকল্প চ্যানেল দিয়ে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখা হয়েছে।

জানা গেছে, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১টি জেলার যানবাহনের ঢাকাসহ সারাদেশের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য গুরুত্বপূর্ণ দুটি নৌরুট হচ্ছে শিমুলিয়া-কাঁঠারবাড়ী ও দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া। ভারতের বিভিন্ন স্থানে বন্যা ও ফাঁরাক্কা ব্যারেজের সবকয়টি গেট খুলে দেয়ায় পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। নদীতে তীব্র স্রোত ও নৌরুটে দুটিতে নাব্যতা সংকটের সৃষ্টি হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিসির পাটুরিয়া ঘাট শাখার ভারপ্রাপ্ত ডিজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, পদ্মা নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে দৌলতদিয়া পয়েন্টে ফেরি ভিড়তে না পারায় সাময়িকভাবে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। পাটুরিয়া ঘাটে কয়েক শতাধিক যানবাহন পারের অপেক্ষায় আটকে আছে।

এছাড়া শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখতে ১২ কিলোমিটার দীর্ঘ বিকল্প চ্যানেল তৈরি করা হয়েছে। নাব্যতা রক্ষায় ১২টি ড্রেজার দিয়ে নদী খনন করতে হচ্ছে। স্রোতের তীব্রতার কারণে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথের পুরাতন চ্যানেলের মাটি ও বিকল্প চ্যানেলের দুই পাড়ের চর ভেঙ্গে বিকল্প চ্যানেলের মুখসহ লৌহজং টার্নিং পয়েন্ট হতে মাগুরখন্দ এলাকায় পলি জমে নাব্যতা হারাচ্ছে। বর্তমানে পানিরগভীরতা ৯-১০ ফুট। লৌহজং টার্নিং পয়েন্ট, বিকল্প চ্যানেলের মুখে ও মাগুরখন্দ এলাকায় তুলনামূলক বেশি পরিমাণ পলি মাটি জমে। তবে নদী খননের কারণে বর্তমানে পুরাতন চ্যানেল ও বিকল্প চ্যানেলে প্রয়োজনীয় নাব্যতা থাকায় ফেরি চলাচলে কোন সমস্যা হচ্ছে না। তবে নদীতে তীব্র স্রোত থাকায় ড্রেজিং কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে।

এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর মাহবুব-উল ইসলাম সংবাদকে বলেন, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ফেরিী ও নৌরুটে নাব্যতা সংকট সৃষ্টি হয়েছে। ভারতের বিভিন্ন স্থানে বন্যা ও ফাঁরাক্কা ব্যারেজের সবকয়টি গেট খুলে দেয়ায় পদ্মা নদীর পানি দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রবল স্রোতের কারণে ব্যাপক ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে উজান হতে স্রোতের সঙ্গে পলি জমে লৌহজং টার্নিং পয়েন্ট, বিকল্প চ্যানেল ও ফেরি রুট দ্রুত ভরাট হচ্ছে। এ কারণে চ্যানেলের গভীরতা কমে ৯/১০ ফুটে চলে আসায় চ্যানেল বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। তাই প্রতিদিন ১২টি ড্রেজার দিয়ে নৌপথটি খনন করতে হচ্ছে।

নাব্যতা রক্ষায় বিআইডব্লিউটিএর নেয়া বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে প্রধান প্রকৌশলী (ড্রেজিং) আবদুল মতিন বলেন, বিরূপ পরিস্থিতিতে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ফেরি-রুটে ফেরি ও নৌচলাচল নির্বিঘ্ন রাখতে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ প্রতি বছরের ন্যয় পূর্বের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী সোজা চ্যানেল হতে প্রায় ১ দশমিক ৫০ কিলোমিটার ভাটিতে উচু চরের মধ্য দিয়ে গত ২৩ মার্চ থেকে পর্যাক্রমে কর্তৃপক্ষের ৯টি ড্রেজার ও বেসরকারি ৩টি ড্রেজার নিয়োগ করে ৮০ মিটার প্রশস্ত ১ দশমিক ৫০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে ৪ মিটার গভীরতায় প্রায় ১৫ লাখ ঘন মিটার বালু অপসারণ করে একটি বিকল্প চ্যানেল খননের মাধ্যমে গত আগস্ট থেকে ফেরি ও নৌযান চলাচলের ব্যবস্থা করা হয়।

বিআইডব্লিউটিএর সূত্র জানায়, বর্ষা মৌসুমে এই ফেরি রুটের মূল পদ্মা নদীর সঙ্গে সংযুক্ত লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রবল স্রোতে ঘূর্নবার্তের সৃষ্টি হয়। নাব্যতা সংকট ও প্রবল স্রোতের কারণে এ সময়ে ফেরি চলাচল বাধাগ্রস্ত হয়। এ সময় নাব্যতা সংকট নিরসনে নদী খনন কাজ বাধাগ্রস্ত হয়। তীব্রস্রোতে ড্রেজার ভাসিয়ে নিয়ে যায়। উজান থেকে আসা পলি দ্বারা নৌচ্যানেলটি ভরাট হয়ে যায় এবং ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়া উপক্রম হয়। তাই এই সমস্যা সমাধানে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে বিআইডব্লিউটিএ নিজস্ব ড্রেজার দিয়ে নদী খনন করে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখা হচ্ছে।

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে যান পারাপার বন্ধ

গোয়ালন্দ রাজবাড়ী প্রতিনিধি জানান, পদ্মার তীব্র স্রোতের সাথে পাল্লা দিয়ে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে চলতে পারছে না নৌযান। এতে করে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট দিয়ে গতকাল বেলা ২টা থেকে যানবাহন পারাপার বন্ধ হয়ে গেছে। এর আগেরদিন শুক্রবার দুপুর ১টা থেকে লঞ্চ চলাচল ঝুকিপূর্ণ হয়ে ওঠায় এ রুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এদিকে পদ্মার ভয়াবহ ভাঙনে দৌলতদিয়া ফেরিঘাট এলাকায় শনিবারও চোখের পলকে অন্তত অর্ধশত বসতবাড়ি নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। শ’ শ’ বসতবাড়ি দ্রুত সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। একদিকে ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের আহাজারি অন্যদিকে দৌলতদিয়া ঘাট দিয়ে চলাচলকারী লাখ লাখ মানুষে দুর্ভোগে ঘাট এলাকায় যেন নেমে এসেছে মহা দুযোগ।

বিআইডবিউটিসি সূত্র জানায়, স্রোতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ফেরি গুলো চলাচল ও ঘাটে ভিরতে না পারায় বন্ধ হয়ে গেছে সব ধরনের যানবাহন পারাপার। শুধু মাত্র যাত্রী পারাপারে জন্য ৩টি ইউটিলিটি (ছোট) ফেরি চলাচল করছে ব্যাস্ততম এই নৌরুটে। এতে করে দৌলতদিয়া প্রান্তে আটকা পড়েছে শ’ শ’ যানবাহন।

সরেজমিন শনিবার দেখা যায়, দৌলতদিয়া ১নং ফেরিঘাট নদী ভাঙনের কবলে পড়ে পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে। ২নং ফেরি ঘাটও যে কোন সময় নদীতে হারিয়ে যাওয়ার আশঙ্কায় রয়েছে। এছাড়া ঘাট এলাকার শ’ শ’ বাড়িঘর অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। চোখের পানি আর গায়ে ঘাম যেন এক হয়ে গেছে। কারও কোন কথা বলার সময় নেই। সবারই একটাই চাওয়া, সর্বস্ব নদীতে বিলীন হওয়ার আগে যতটুকু সরানো যায়।

এ সময় কথা হয় রিপন, আতিয়ার, মোবারকসহ কয়েক যুবকের সঙ্গে, তারা জানায় তারা তাদের বন্ধু রশিদের বাড়ি সরানো কাজে সহযোগিতা করতে এখানে এসেছেন। বন্ধুর এই দুঃসময় তার পাশে থাকার চেষ্টা করছেন। তারা জানান, বাড়িঘর পদ্মায় চলে যাওয়ার আগে যতটুকু উদ্ধার করা যায় তাইবা কমকি মেয়ে-জামাইয়ের বাড়ি নদীতে ভেঙে যাচ্ছে শুনে এসেছেন মাজেদা বেগম। তিনিও বাড়ি থেকে আসবাবপত্র এনে সড়কের ওপর রাখছেন। তিনি জানান, আমার মেয়ের সোনার সংসার ছিল। এক মুহূর্তে ওরা নিস্ব হয়ে গেল। এরকম ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের আত্মীয়স্বজন যে যেখানে ছিল, সবাই ছুটে এসেছেন, আসবাবপত্র সরানো কাজ করছেন।

এদিকে গত ২৪ ঘন্টায় রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া গেজ স্টেশন পয়েন্টে পদ্মা নদীর পানি ৫ সেন্টিমিটার কমে বিপৎসীমার ৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যার পনি কমার সঙ্গে সঙ্গে ভাঙনের তীব্রতা বাড়ছে।

স্রোতের কারণে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে ফেরি ঘাট এলাকায়। ফলে ১ ফেরি ঘাট পদ্মায় বিলীন হয়ে গেছে। অপর ৫টি ঘাটেও তীব্য স্রোতের কারণে ফেরি ভিরতে পারছে না। শুধুমাত্র ৬নং ফেরিঘাটের একটি পকেটে ছোট ফেরি ভিরছে। ভাঙ্গন রোধে কাজ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। বর্তমানে এরুটে ১৬টি ফেরির মধ্যে ৩টি ইউটিলিটি ফেরি চলাচল করছে। এ সকল ফেরিতে শুধুমাত্র যাত্রী পারাপার করা হচ্ছে।

গুরুত্বপূর্ণ দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট দিয়ে যানাবাহন পারাপার বন্ধ হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে বিভিন্ন জেলা থেকে নদী পারাপার হতে আসা যানবাহনের যাত্রী ও চালকরা। ঘণ্টার পর ঘণ্টা সিরিয়ালে বসে থেকেও ফেরি নাগাল পায়নি। এরপর যখন যানবাহন পারাপার বন্ধ হয়ে গেছে তখন ফেরির দেখা পাওয়ার সম্ভাবনাও ক্ষীন হয়ে গেছে। এ পরিস্থিতিতে বেশির ভাগ যানবাহনের যাত্রীরা বাস ছেড়ে দিয়ে ব্যাগ- বোঝা নিয়ে কয়েক কিলোমিটার পায়ে হেঁটে ফেরি ঘাটে গিয়ে ফেরিতে নদী পারাপার হচ্ছেন। এতে দুর্ভোগের পাশাপাশি তাদের খচর করতে হচ্ছে অতিরিক্ত অর্থ।

এদিকে তীব্র স্রোতে গত কয়েক দিনে দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটসহ আশপাশ এলাকার প্রায় ৪ শতাধিক বসতবাড়ী ভাঙনের কবলে পড়েছে। ভাঙন কবলতিরা বসত ভিটা হাড়িয়ে ঘর-বাড়ি ভেঙে সরিয়ে নিরাপদ স্থানে যাবার চেষ্টা করছেন। তবে একাধিকবার বাড়ি-ঘর নদীতে বিলিন হওয়ায় অসহায় হয়ে পড়েছে ক্ষতিগ্রস্তরা। তাদের দাবি স্থায়ীভাবে দৌলতদিয়া থেকে রাজবাড়ীর গোদার বাজার পর্যন্ত নদী শাসনের জন্য।

রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আরিফুর রহমান অঙ্কুরের দাবি ভাঙনের কবল থেকে দৌলতদিয়া ঘাট রক্ষার জন্য তারা সর্বাত্মক চেষ্টা করছেন।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া ঘাট ব্যাবস্থাপক (বাণিজ্য) আবু আবতুল্লাহ রণি জানান, তীব্র স্রোতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল কয়েকদিন ধরেই ব্যাহত হচ্ছে। স্রোতে ফেরিগুলো ঘাটে ভিড়তে সমস্যা হচ্ছে। তবে ব্যস্ততম এরুটে জনদুর্ভোগ কিছুটা কমানো জন্য যাত্রী পারাপারে ছোট ৩টি ইউটিলিটি ফেরি চলছে।

লাল-সবুজের ফেরিওয়ালা ফজলু

প্রতিনিধি, আদমদীঘি (বগুড়া)

image

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরের বিজয় দিবস উপলক্ষে ফেরি করে জাতীয় পতাকা বিক্রি শুরু হয়েছে। ডিসেম্বরের শুরু

এলাকাবাসীর স্বউদ্যোগে কাঠের সেতুতে জীবন ঝুঁকির অবসান

আতাউর রহমান, ভালুকা (ময়মনসিংহ)

image

ভালুকার ঝালপাজা গ্রামে খীরু নদীর ওপর প্রায় দেড়শ ফুট লম্বা একটি কাঠের সেতু নির্মাণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে এলাকাবাসী। ভালুকার

আওয়ামী লীগ নেতা ও বন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বন উজাড়ের অভিযোগ

শামসুল ইসলাম সহিদ, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)

image

বনের জায়গা দখল করে অবাদে নির্মিত হচ্ছে ঘর বাড়ি। এতে বনের জায়গা কমে পরিবেশের ভারসাম্য বিনষ্ট হচ্ছে বলে গুরুতর অভিযোগ

sangbad ad

ব্যাংক থেকে ১১৫ কোটি টাকার ঋণ নিয়ে দম্পতি উধাও

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

সাউথ ইস্ট ব্যাংকের নওগাঁ শাখা থেকে ব্যবসার জন্য ১১৫ কোটি টাকা ঋণ নেয়ার পর দেশ ছেড়ে পালিয়েছে এক ব্যবসায়ী দম্পতি। ব্যবসায়ী

বাব-দাদার দান বলে স্কুল মাঠের মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছেন প্রধান শিক্ষক

প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম

image

উপজেলার নাওডাঙ্গা ইউনিয়নের কুরুষাফেরুষা খন্দকার পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান নিজের নিচু

শিবচরে শেখ হাসিনা তাঁতপল্লীতে খুঁজে পাওয়া যায় না ১৯’শ কোটি টাকা!

প্রতিনিধি, শিবচর (মাদারীপুর)

image

শিবচরে শেখ হাসিনা তাঁত পল্লীতে কোটি টাকার দুর্নীতি অভিযোগ উপজেলা প্রশাসনের তদন্তে প্রমাণও মিলেছে। ক্ষতিপূরণের তালিকায় বেশকিছু

নিষেধাজ্ঞা ও স্বাস্থ্য হুমকি উপেক্ষা করে মৎস্য ঘেরে মুরগির খামার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, বরিশাল

image

সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছের খাদ্য হিসেবে বরিশালের অধিকাংশ

সমুদ্রসীমানায় আটক ১৭ বাংলাদেশিদের মায়ানমার থেকে ফেরত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে মিয়ানমারে আটক হওয়া ১৭ বাংলাদেশী

অকল্পনীয় সংখ্যায় কুকুরের কারণে পযর্টকসহ সেন্টমার্টিনবাসীরা রীতিমতো আতঙ্কে

জসিম সিদ্দিকী, কক্সবাজার

image

কক্সবাজারের টেকনাফ সেন্টমার্টিনে কুকুরের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে পর্যটক এবং দ্বীপের বাসিন্দারা। প্রায় ১০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের

sangbad ad